‘বউ-চুরি’ বছরে একবার এই উৎসবে মাতেন ওডাবে-রা

0
936

পশ্চিম আফ্রিকার নিগার দেশের মানুষ ওডাবে জনজাতির লোকজন । পৃথিবীর প্রতিটি সম্প্রদায় বা জনজাতির কিছু না কিছু মৌলিক সংস্কৃতি থাকে, যা আর কারও থাকে না । সেই হিসেবে ওডাবে-দেরও তা আছে এবং সেটি বেশ অদ্ভুত । এই সম্প্রদায়ের পুরুষরা মনে করেন, তাঁরা পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর পুরুষ । এবং তাই তাঁরা সবসময় নিজেদের সঙ্গে আয়না রাখেন ।

এ তো গেল পুরুষদের কথা । বিয়ের বিষয়ে তাঁদের ব্যবস্থা আরও অদ্ভুত । সম্প্রদায়ের মহিলারা বিয়ের আগে যত জন খুশি সঙ্গীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হতে পারেন ।

এরপরই যখন আসে, বিয়ের সময়, তখন সম্প্রদায়ের তরফে এক বাৎসরিক উৎসবের আয়োজন করা হয় । উৎসবের নাম গেরওল । পুরুষরা তাঁদের সেরা পোশাকটা পরেন । খুব সাজগোজ করেন । তাঁদের একটাই উদ্দেশ্য অন্যের স্ত্রীকে মুগ্ধ করা ।

এই জনজাতির মানুষের বিশ্বাস টিকালো নাক, চোখের সাদা অংশের উজ্জ্বলতা আর সাদা দাঁতের মান দিয়েই সৌন্দর্য মাপা যায় । তাই পুরুষরা নিজেদের এই দিকগুলোকে আরও বেশি করে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেন । জনজাতির সেরা সুন্দরী তিন মহিলার হাতে থাকে সেরা পুরুষ নির্বাচনের দায়িত্ব ।

এ তো গেল সৌন্দর্যের প্রতিযেগিতা । এরপরেই শুরু হয় বউ-চুরির খেলা । কোনও পুরুষ যদি কোনও বিবাহিতা নারীকে পুরোপুরি মুগ্ধ করতে পারেন, তাহলে তাঁর সুযোগ থাকে ওই মহিলার দ্বিতীয় স্বামী হয় ওঠার । এমনকী আগে ধরা না পড়লে ওই মহিলা পুরনো স্বামীর কাছ থেকে বেরিয়ে এসে শুধুমাত্র নতুন স্বামীর কাছেও চলে যেতে পারেন । জনজাতির কেউ-ই তাতে আপত্তি করেন না ।

ওডাবে জাতির সংস্কৃতির মধ্যেই রয়েছে একাধিক সম্পর্কের বৈধতার স্বীকৃতি । সেই কারেণ এই স্ত্রী-চুরিতে খুব একটা আপত্তি থাকে না কারওরই । কিন্তু আধুনিক সময়ে অনেকেই আর মেনে নিচ্ছেন না এই খেলা । তাই অনেক স্বামী তাঁদের স্ত্রীদের এই খেলায় অংশ গ্রহণ করতে দেন না ।