কম বয়সী বান্ধবী কেন বেশি পছন্দ করেন বুড়ো পুরুষরা?

0
1164

প্রেম এমন এক জিনিস যা যেকোনো সময় হয়ে যেতে পারে। বয়সের তফাতের সেক্ষেত্রে কোনো গুরুত্বই থাকে না। বলিউড সেলিব্রিটি, রাজনীতিবিদ বা ধনী ব্যক্তি যাকেই ধরুন না কেন অনেক সময়ই দেখা যায় কোনো বয়স্ক পুরুষ কোনোও অল্পবয়সী বান্ধবীর প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায় অনুপ জলোটার ঘটনাটি, যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া তোলপাড় হয়। রিয়্যালিটি শো ‘বিগ বস’-এর ঘরে ৩৭ বছরের ছোট জসলীনের সাথে প্রেম করে বসেন অনুপ জলোটা। শুধু অনুপ জলোটা নন, আজ আপনাদের সামনে আরও কিছু সেলিব্রিটির কথা বলবো যারা বয়সের তোয়াক্কা না করেই প্রেমে মজেছেন অল্প বয়সী বান্ধবীর সাথে। আর তার সাথে এটাও জানাবো, কেন কম বয়সী বান্ধবী পছন্দ করেন বুড়ো পুরুষরা।

কম বয়সী মহিলাদের সঙ্গে পুরুষের সম্পর্ক নিয়ে গবেষণা করেছে ফিনল্যান্ডে মনস্তত্ববিদ্যার বিশ্ববিদ্যালয়। তাদের দাবি, বেশি বয়সী পুরুষরা অভিজ্ঞ। এর পাশাপাশি আর্থিকভাবেও তাঁরা বলবান। সে কারণেই ‘বুড়ো’দের পছন্দ করেন তরুণীরা।

আর একটি গবেষণা বলছে, পুরুষের বয়স যতই বেশি হোক না কেন, কম বয়সীদের প্রতি টান থাকে তাঁদের। বয়স ৩০ হোক বা ৬০ পুরুষরা সাধারণত ২০-২২ বছরের তরুণীর সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে চান। যুবতীদের প্রতিই আকর্ষিত হন পুরুষ।

নিজের বান্ধবী জসলীনকে নিয়ে বিগ বসের ঘরে হাজির হয়েছিলেন অনুপ জালোটা। ২৮ বছরের জসলীনের সঙ্গে ৬৫ বছরের অনুপ জালোটার সম্পর্ক নিয়ে তৈরি হয়েছিল ব্যাপক শোরগোল। শোয়ে নিজেদের সম্পর্ক স্বীকার করে অনুপ ও জসলীন জানিয়েছিলেন, কয়েক বছর ধরে সম্পর্ক লুকিয়ে রেখেছিলেন তাঁরা। গোপনে সাক্ষাৎও করতেন তাঁরা।

২০১৬ সালে অভিনেতা কবীর বেদী নিজের চেয়ে ২৯ বছরের ছোট পরবীন দোসাঞ্জের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। ১০ বছর ধরে পরবীনের সঙ্গে মেলামেশা ছিল কবীরের। এটি তাঁর চতুর্থ বিবাহ। বলে রাখি, কবীরের মেয়ে পুজা বেদী তাঁর স্ত্রীর থেকে ৫ বছরের বড়।

গত বছর ২৫ বছরের ছোট অঙ্কিতাকে বিয়ে করেছেন মডেল মিলিন্দ সোনম। অঙ্কিতা জানিয়েছেন, একটি নৈশক্লাবে তাঁর সঙ্গে মিলিন্দের পরিচয় হয়। তার আগে কখনও নৈশক্লাবে যাননি তিনি।

৯ হাজার কোটি টাকার ঋণখেলাপ করে দেশ ছেড়েছেন বিজয় মালিয়া। লন্ডনে মালিয়ার সঙ্গে থাকেন তাঁর বান্ধবী পিঙ্কি লালবানী। সম্প্রতি তাঁদের বিয়ের খবরও এসেছিল।

২০০৪ সালে ৫১ বছরের সলমন রুশদিকে বিয়ে করেছিলেন অভিনেতা-মডেল-টিভি উপস্থাপিকা পদ্মলক্ষ্মী। ২০০৭ সালে লেখকের সঙ্গে ডিভোর্স হয় তাঁর।

source – জি ২৪ঘন্টা