দীর্ঘদিনের সম্পর্কে ভাঙনের জন্য দায়ী কে? পুরুষ না মহিলা?

0
391

সময়ের সঙ্গে গভীর হয় ভালবাসাও । আর তাই সেই দীর্ঘদিনের সম্পর্কেই যখন ছেদ পড়ে, তখন তা নিঃসন্দেহে হয়ে ওঠে বেদনাদায়ক । প্রেমিক-প্রেমিকার মধ্যে ব্রেক-আপের কারণ নানারকম হতেই পারে । কিন্তু কারণ যাই হোক, সম্পর্ক ভাঙলে মন খারাপ হওয়াই তো স্বাভাবিক । তবে পুরুষ না নারী ?

দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্কে বিচ্ছেদের নেপথ্যে সাধারণত কে বেশি দায়ী থাকে ? কেনই বা জীবনের অভ্যাসে পরিণত হওয়া একটি সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে চান কেউ ? চলুন দেখে নেওয়া যাক কী বলছে সমীক্ষা ।

একটি অনলাইন মার্কেট রিসার্চ অ্যান্ড ডেটা অ্যানালিটিক্স ফার্ম এক হাজার জন প্রাপ্ত বয়স্কদের নিয়ে একটি সমীক্ষা করে । যাঁদের প্রত্যেকেই দীর্ঘদিন ধরে সম্পর্কে রয়েছেন । প্রেম সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রশ্ন তাঁদের করা হয়েছিল ।

কতজনের সঙ্গে দীর্ঘদিনের সম্পর্কে জড়িয়েছেন, তাঁদের ব্রেক-আপ হয়েছে কি না, যদি হয়ে থাকে তবে কে সম্পর্কে ইতি টানতে চেয়েছিলেন ইত্যাদি ইত্যাদি । সেই সমীক্ষাতেই উঠে এসেছে মজাদার কিছু তথ্য ।

ফার্মটি জানাচ্ছে, ৭৬ শতাংশ মহিলা নির্দ্বিধায় মেনে নিয়েছেন নিজেদের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ভাঙার কথা । পুরুষদের সংখ্যা কিন্তু এক্ষেত্রে খানিকটা কমই । ৬২ শতাংশ পুরুষ স্বীকার করেছেন তাঁদের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক শেষ হওয়ার কথা ।

এখানেই শেষ নয়, ৮৪ শতাংশ প্রেমিক আবার বলছেন, প্রেমে ধোকা খেয়েছেন তাঁরা । আবার ৬৭ শতাংশ প্রেমিকার মতে, নতুন পার্টনার খুঁজে পাওয়ায় ছেড়ে চলে গিয়েছেন সঙ্গী ।

কিন্তু ভাঙনের জন্য দায়ী কে ? সমীক্ষা খানিকটা হলেও হাসি ফোটাবে প্রেমিকদের মুখেই । ৭ শতাংশ পুরুষ যেখানে বলছেন, দীর্ঘদিনের সম্পর্কে ব্রেক-আপের জন্য তাঁরাই দায়ী, সেখানে মহিলাদের ক্ষেত্রে সেই হার ১৯ শতাংশ ।

তবে মিউচুয়াল ব্রেক-আপ কিংবা উভয়ের সম্মতিতে সম্পর্ক শেষ করার ক্ষেত্রে পুরুষ ও মহিলার সংখ্যা মোটামোটি একই । ৪৮ শতাংশ পুরুষ ও ৪১ শতাংশ মহিলা জানাচ্ছেন, পরস্পর আলোচনার মাধ্যমেই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে এসেছেন তাঁরা ।

তবে এ সমীক্ষা থেকেই কিন্তু মহিলা বা পুরুষকে বিচ্ছেদের জন্য কাঠগড়ায় দাঁড় করানো যাবে না । কারণ এক হাজার সংখ্যাটি এক্ষেত্রে নেহাতই নগণ্য ।

তাছাড়া কষ্ট হলেও নানা কারণে সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসার প্রয়োজনও বোধ করেন অনেকে । তাই পরিসংখ্যানের দিকে না তাকিয়ে নিজেদের সম্পর্ককে অটুট রাখার চেষ্টাই করুন । দীর্ঘ হোক আপনার ভালবাসাও ।

সূত্র – আরএম-০৬/০২/১২ (লাইফস্টাইল ডেস্ক)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here