নে’শার ঘোরে শাশুড়িকে ‘হবু বউ’ মনে করে মালা পরিয়ে দিলেন জামাই, দেখুন ভিডিও

0
164

‘এই তো জীবন, যাক না যেদিকে যেতে চায় প্রাণ, বেয়ারা, চালাও ফোয়ারা, জি’নশেরি শ্যা’ম্পেন, রাম।’ নাহ, এখানে কোনও বেয়ারা ‘ফোয়ারা’ ছুটিয়েছিল কিনা তা জানা যায়নি, তবে জামাই বাবাজি যে নে’শায় বুঁদ হয়ে ছিলেন, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। বিয়েবাড়ি ভর্তি আত্মীয়। সম্প্রদান শেষে বিয়ের মণ্ডপে আনা হয়েছে লেহেঙ্গা-গয়নায় সেজে ওঠা কনেকে। পিছনে মন্ত্র পড়ছেন পুরোহিত। মালা বদলের শুভ মুহূর্ত উপস্থিত।

এতক্ষণ পর্যন্ত সব ঠিক ছিল। এরপরই আসল ক্লাইম্যাক্স! কনে নয়, টলতে টলতে কনের পাশে দাঁড়ানো শাশুড়ি মায়ের গলায় গাঁদাফুলের ‘বরমালা’ পরিয়ে দিলেন ‘গুণধর’ বর! অতিথি-অভ্যাগতদের তো চক্ষু চড়কগাছ। করে কী জামাই! শাশুড়ি অবশ্য ঠেলে সরিয়ে দিয়েছেন জামাইকে। ফলে বরমালা তাঁর হাতেই থেকে গেছে।

প্রতীকী ছবি

এই গোটা ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে দাবানলের মতো। যা দেখলে আপনিও হাসতে হাসতে লুটিয়ে পড়বেন মাটিতে। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই মদ্যপ জামাইকে পরাস্ত করতে সক্ষম হন শাশুড়ি। যদিও এরপর বর বাবাজীবন হবু স্ত্রীকে মালা পড়ানোর জন্য সমস্ত প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছিলেন। বন্ধুরা তাঁকে ধরে সোজা করে দাঁড় করিয়ে, হাতে মালা দিয়ে রেডি করে ফেলেছিলেন।

কিন্তু নে’শাটা একটু বেশি হয়ে গিয়েছিল সম্ভবত! তাই মালা আর পড়িয়ে ওঠা হয়নি। কাঁপা কাঁপা হাতে যেই মালা পরাতে যাবেন, তখনই টলে কনের পায়ের সামনে হুমড়ি খেয়ে পড়ে যান! পাশেই রাখা ছিল একটা চেয়ার। তাতে মাথা রেখে ঘুমিয়েও পড়লেন ততক্ষণাৎ। সে রাতে আর মালাবদলটা হল কি না জানা যায়নি।

দেখুন সেই ভিডিও –

ইনস্টাগ্রামে এই ভিডিয়ো পোস্ট হওয়ার পর থেকে লাইকের বন্যা। তবে কাহিনি অসমাপ্তই রয়ে গেল। ক্যাপশনে লেখেন, “Thodi jyada pili yaar“, যার বাংলা তর্জমা করলে দাঁড়ায়, “একটু বেশিই পান করা হয়ে গিয়েছে বন্ধু”। ভিডিওটি পোস্ট করার সিঙ্গে সঙ্গেই লাইকের বন্যা বয়ে গিয়েছে। হাসির রোল উঠেছে নেটিজেনদের মধ্যে।

সূত্র –