সন্ন্যাসীনি হওয়ার জন্য ৮ বছরের প্রশিক্ষণ নেওয়ার পর অবশেষে পর্নস্টার হয়ে গেলেন মহিলা

0
1091

আজ আপনাদের এমন এক মহিলার কথা বলবো যিনি সন্ন্যাসীনি হওয়ার জন্য কনভেন্টে প্রায় এক যুগ কাটিয়েছেন এবং সেখানকার সমস্ত আচার-আচরণও শিখেছেন কিন্তু অবশেষে হয়ে গেলেন একজন পর্নতারকা।

আমরা যে মহিলার কথা বলছি তার নাম ইয়ুডি পিনেডা যিনি উত্তর-পশ্চিম কলম্বিয়ার ইটুয়াঙ্গোর বাসিন্দা। বর্তমানে যিনি সন্ন্যাসীনি হওয়ার সমস্ত চিন্তাধারা ভুলে অ্যাডাল্ট সিনেমা তৈরি করতে ব্যস্ত রয়েছেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে এক সাক্ষাৎকারে ইয়ুডি তার জীবনের সমস্ত ঘটনা বলেন। কিভাবে তিনি অল্প বয়সে চার্চে আসেন।

Twitter

তিনি বলেন, “ছোটোবেলায় কলম্বিয়ার উরাবা এলাকার একটি স্কুলে আমি পড়তাম। সেখানে একদিন কিছু সন্ন্যাসীনি আমাদের সাথে দেখা করতে আসেন আর সেখানেই আমি সিদ্ধান্ত নিই যে আমিও বড় হয়ে সন্ন্যাসীনি হবো।”

CEN

সুতরাং যেমন ভাবা সেরকম কাজ। মাত্র ১০ বছরে বয়সে সে কনভেন্টে যোগদান করে এবং সেখানেই পরবর্তী ৮ বছর কাটায় আর সেইসাথে চলে তার প্রশিক্ষণও। কিন্তু বিধিবাম, ইয়ুডি জানান সেখানে তিনি ভীষণ খুশি ছিলেন, কিন্তু যখন তিনি বড় হতে শুরু করলেন তখন কনভেন্টেরই এক ধার্মিক শিক্ষাগুরুর প্রেমে পড়েন। ফলস্বরুপ তিনি চার্চ ছেড়ে দেন এবং অন্যত্র চাকরির সন্ধান করতে শুরু করেন।

CEN

ইয়ুডি জানান এরপর তিনি কলম্বিয়ার মেডিলিন শহরে একটি চাকরি পান, যেখানে তিনি নেসলে সংস্থায় কাজ শুরু করেন। কিন্তু এরপরই জীবনের মোড় ঘোরে ইয়ুডির যখন তিনি হঠাৎই জুয়ান বাস্তোস-এর সাথে মিলিত হন, যিনি অ্যাডাল্ট ওয়েবক্যাম মডেলদের নিয়োগ করেন। ইয়ুডি তখনই অন্যরকম কেরিয়ার বেছে নেওয়ার কথা ভাবতে শুরু করে।

CEN

ইয়ুডি আরও বলেন, “প্রথম প্রথম আমার খারাপ লাগতো, কিন্তু এখন আমার এই কাজ বেশ ভালোই লাগে। এখনও আমি নিয়মিত চার্চে যায়, ফ্রাইডে প্রেয়ার, সাটারডে মিটিং বা সানডে মাস কোনোটাই মিস করি না আর এগুলো আমার খুব ভালো লাগে।”

তবে চার্চে গিয়ে ইয়ুডি কনফেস করার সময় কি বলেন সেটা নিঃসন্দেহে বেশ ইন্টারেস্টিং হবে!

ইয়ুডি এও স্বিকার করেছেন করেছেন যে, চার্চে গেলে চার্চের ধর্মযাজক তার কাজের ব্যাপারে কথা বলার চেষ্টা করেছেন কিন্তু ইয়ুডি সেসবে পাত্তা না দিয়েই নিজের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

CEN

তার এই কেরিয়ার বেছে নেওয়ার কারণ জিজ্ঞেস করলে উত্তরে ইয়ুডি জানান, “এটা একটা শৈল্পিক কাজ এবং এর মধ্যে খারাপ কিছুই নেই।”

সবশেষে তিনি অ্যাডাল্ট সিনেমার প্রতি নিজের ভালোবাসার কথাও জানিয়েছেন। তিনি বলেন, “আমি নিয়মিত পর্ন দেখি এবং হস্তমৈথুন করতেও আমার ভালো লাগে। আর যে জিনিসটা তোমার ভালো লাগে, সেটা যদি তোমাকে কাজ হিসেবে করতে দেওয়া হয়, তখন সেটাকে তোমার আর কাজ বলে মনেই হবে না।”

CEN

আপনাদের মতামত কমেন্ট করে জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here