এই ১০টি সিনেমা থেকে বাদ দেওয়া হয় কিছু ঘনিষ্ঠ দৃশ্য, যেগুলি পরে ইন্টারনেটে ফাঁস হয়

0
1241

আপনি হয়তো অনেকবার শুনেছেন যে কিছু সিনেমার কিছু অশ্লীল যৌন বিষয়গুলির কারণে, সেন্সর বোর্ড এটি কেটে বাদ দেয়। এছাড়াও এমন কয়েকটি চলচ্চিত্র রয়েছে যা নিষিদ্ধ করা হয়। এই সমস্ত সিনেমা প্রধানত দুটি কারণে ব্যান করা হয়। প্রথম কারণ, সিনেমার গল্পটি যখন মোটেই ভালো হয় না ও সব দর্শকদের দেখার উপযুক্ত হয়না আর দ্বিতীয়ত অভিরিক্ত অশ্লীলতা থাকার কারণেও সিনেমা ব্যান করা হয়। তবে আজ আমরা নির্দিষ্ট ১০টি সিনেমার কয়েকটি অন্তরঙ্গ দৃশ্যের কথা বলবো যেগুলি ছবি মুক্তি পাওয়ার জন্য সেন্সর বোর্ডের কাঁচিতে পরেছিল। পরবর্তীকালে সিনেমা মুক্তি পাওয়ার পর এই দৃশ্যগুলিও অবশ্য ইন্টারনেটে ফাঁস হয়ে যায়। এই দৃশ্যগুলি আপনি YouTube-এ খুঁজলে সহজেই পেতে পারেন ।

আসুন দেখে নেওয়া যাক সেই সমস্ত বাদ দেওয়া সিনেমার দৃশ্যগুলি কোন কোন সিনেমার।

১. বুম

নিজের কেরিয়ারের শুরুটা করেছিলেন ক্যাটরিনা বুম সিনেমাটি দিয়ে। এই সিনেমায় ক্যাটরিনাকে নায়িকা কম, দেহ প্রদর্শক এবং উত্তেজক দৃশ্য করার অভিনেত্রী হিসেবেই বেশি দেখা যায়। এই সিনেমায় ক্যাটরিনাকে অন্তর্বাস পরে গুলশান গ্রোভারের সামনে উত্তেজকভাবে শরীর প্রদর্শন করতে দেখা যায়। সিনেমার এই দৃশ্যটি বাদ দেওয়া হয়েছিল রিলিজের আগে।

২. শ্যুটআউট অ্যাট ওয়াডালা

এই সিনেমায় কঙ্গনা এবং জনের অনেকগুলি ঘনিষ্ঠ দৃশ্য দেখানো হয়। এই সিনেমার একটি দৃশ্যে জন যখন কঙ্গনার কাছে যায়, তখন জন জোর করতে থাকে, কিন্তু কঙ্গনা বাধা দিতে থাকে। এরপর কঙ্গনাও সাথ দিতে থাকে জনের এবং শুরু হয় একটি শয্যাদৃশ্য।

৩. জিসম ২

এই সিনেমায় একটি দৃশ্যে সানি লিওন এবং রণদীপ হুডাকে বিছানায় ঘনিষ্ঠ হতে দেখা যায়। এই দৃশ্যের জন্য দুজনেই যথেষ্ঠ পরিশ্রম করেন, কিন্তু সেন্সর বোর্ড সিনেমার এই দৃশ্যটি বাদ দিয়ে দেয়।

৪. হিরোইন

হিরোইন সিনেমায় করিনা কাপুর এবং অর্জুন রামপালকে একটি চরম ঘনিষ্ঠতার দৃশ্যে দেখা যায়। করিনা যথেষ্ঠ সক্রিয়ভাবে এই দৃশ্যটির অভিনয় করেন। কিন্তু অতিরিক্ত ঘনিষ্ঠতার দৃশ্য হওয়ার জন্য সেন্সর বোর্ড কাঁচি চালিয়ে সিনেমা থেকে এই দৃশ্যটি বাদ দিয়ে দেয়।

৫. মার্ডার

এই সিনেমায় মল্লিকা শেরাওয়াত এবং ইমরান হাসমিকে একাধিক রোম্যান্টিক দৃশ্যে দেখা যায়। এই সিনেমায় অনেকগুলি প্রেমের দৃশ্য দেখানো হলেও, আপনারা হয়তো জানেন না যে, এটি থেকে কিছু ঘনিষ্ঠ প্রেমের দৃশ্য বাদ দেয় সেন্সর বোর্ড।

৬. আনারকলি অফ আরাহ

এই সিনেমায় অভিনেত্রী স্বারা ভাস্কর অসাধারণ অভিনয় করেন। এই সিনেমায় অভিনয়ের জন্য অনেক প্রশংসাও পেয়েছিলেন স্বারা। কিন্তু সিনেমার কিছু ঘনিষ্ঠ দৃশ্যের জন্য সেন্সর বোর্ড এটিতে কিছু কাটছাঁট করে। পরবর্তীকালে এই ঘনিষ্ঠ দৃশ্য ইন্টারনেটে ফাঁস হয়।

৭. হেট স্টোরি

হেট স্টোরি সিনেমার তিনটি পার্টই বোল্ড সিনেমা হিসেবে প্রচার করা হয় এবং এই সিনেমাগুলি ছিলও সেরকমই। সবকটি পার্টেই সেন্সর বোর্ড কিছু কিছু অংশে কাঁচি চালায়।

৮. মিস লাভলি

পর্ণ ইন্ডাস্ট্রির আতঙ্কের গল্প তুলে ধরা হয়েছিল এই সিনেমায়। আপনাদের জানিয়ে রাখি যে, এই সিনেমার ১৫৭ টি দৃশ্যে কাঁচি চালায় সেন্সর বোর্ড।

৯. জিন্দেগি ৫০-৫০

এই সিনেমায় অভিনয় করার পর অভিনেত্রী বীনা মালিক সংবাদ শিরোনামে উঠে আসেন। এই সিনেমায় বীনা একজন যৌনকর্মী হিসেবে অভিনয় করেন। সিনেমায় রয়েছে একাধিক টপলেস দৃশ্য। এই সিনেমার একটি সঙ্গমের দৃশ্য বাদ দেয় সেন্সর বোর্ড।

১০. লাভ সেক্স অউর ধোকা

২০১০-এ মুক্তি পাওয়া এই ছবির ডিরেক্টর ছিলেন দিবাকর ব্যানার্জি। সিনেমায় দেখানো নগ্ন দৃশ্যগুলি আবছা করে দেখানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

১১. লিপস্টিক আন্ডার মাই বুরখা

 

মহিলা প্রধান এই সিনেমাটি প্রথমে আমাদের দেশে সম্পূর্ণরুপে ব্যান করা হয়েছিল। পরে অনেক বাক বিতন্ডার পর কিছু কিছু অংশে সিনেমাটি মুক্তি পায়। একাধিক সঙ্গমের দৃশ্য রয়েছে এই সিনেমায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here