‘দ্য সিম্পসনস’ এই কার্টুনে ২৭ বছর আগেই করোনা ভাইরাস ছড়ানোর পূর্বাভাস দিয়েছিল

0
254

আমেরিকার কার্টুন প্রোগ্রাম ‘দ্য সিম্পসনস’ আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ায় করোনা ভাইরাসের আত’ঙ্গের মধ্যে এক বিশেষ আলোচনার বিষয় বস্তু হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পূর্বাভাস নাকি প্রায় তিন দশক আগেই দিয়েছিল একটি জনপ্রিয় কার্টুন সিরিজ, দ্য সিম্পসনস। অন্তত এমনটাই দাবি ‘দ্য সিম্পসনস’-এর একদল ফ্যানের। যদিও এই ধারাবাহিকটিতে ভাইরাসের নাম ওসাকা বলে ব্যবহার করা হয়েছিল, যা বর্তমানে করোনা ভাইরাস নামে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে বিশ্ব জুড়ে।

চিন থেকে সারা বিশ্বে এখন আ’তঙ্ক ছড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস। কয়েক হাজার মানুষ এই ভাইরাসে আ’ক্রান্ত। মৃ’ত্যু হয়েছে শতাধিক মানুষের। ইদানীং, সোশ্যাল মিডিয়ায় করোনা ভাইরাসের আত’ঙ্কের আবহে এই দাবি জোরালো হয়ে উঠেছে।

আসলে, ১৯৯৩ সালে প্রচারিত দ্য সিম্পসনসের একটি এপিসোডে দেখা গেছে যে আমেরিকার কল্পিত শহর স্প্রিংফিল্ডে একজন ব্যক্তি জাপান থেকে এসেছেন। তিনি শহরে আসার সঙ্গে সঙ্গেই ছোঁয়াচে এই রোগে পুরো শহর জুড়ে একটি বিপজ্জনক ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। ‘দ্য সিম্পসনস’-এর একটি পর্বে করোনা ভাইরাসের মতোই, একই রকম ছোঁয়াচে ও বিপজ্জনক ভাইরাসের উল্লেখ করা হয়েছিল। ‘দ্য সিম্পসনস’-এর ওই পর্বটির নাম ছিল ‘মার্গ ইন চেইনস’।

এই পর্বগুলি এবং বর্তমানে করোনার ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিটির মধ্যে সাদৃশ্য রয়েছে। ফলে এই পোস্টগুলি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করতেই তা ভাইরাল রয়ে যায়। কেউ কেউ একে ভবিষ্যদ্বাণী আবার কেউ কেউ একে একটি কাকতালীয় ঘটনা হিসেবে বিবেচনা করছে। কারণ ধারাবাহিক অনুযায়ী প্রদর্শিত ভাইরাসটি জাপান থেকে এসেছে। আর এদিকে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে করোনার ভাইরাস ছড়িয়েছে। তবে এই ধারাবাহিকের ভক্তরা একে করে ভবিষ্যদ্বাণী হিসেবেই সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে মন্তব্য করছেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০০০ সালে ‘দ্য সিম্পসনস’-এর একটি পর্বে দেখানো হয় ডোনাল্ড ট্রাম্প আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হয়েছেন। এর ১৭ বছর পর কাকতালীয় ভাবে মিলে যায় বিষয়টি। তাই এ ক্ষেত্রেও ‘দ্য সিম্পসনস’-এর ভক্তদের দাবি, ১৯৯৩ সালে সম্প্রচারিত ওই পর্বে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বাণীই করা হয়েছিল। যদিও এ বিষয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় জোর চর্চা চলছে।

দেখুন সেই কার্টুন –

সূত্র –