আমার টাকা ফেরৎ নিন, করে’নার বিরুদ্ধে লড়ুক ভারত – জানালেন বিজয় মালিয়া

0
528

১০০% ধার শোধ করে দিতে চান কয়েকদিন আগেই এমনটাই টুইট করে লিখে পাঠিয়েছিলেন বিজয় মালিয়া। কিন্তু কোন ব্যাংক বা ইডি এই টাকা ফেরত নিতে চাইছে না। তার কোন উত্তরও দেয়নি ভারত সরকার। আবার তিনি ভারত সরকার ও প্রশাসনের প্রতি আর একটি বার্তা পাঠান যে, আমার থেকে টাকা নিয়ে যান। তারপর সে টাকা খরচ করা হোক করো’না মোকাবিলায়।

দেশের অর্থমন্ত্রীকেও একই বার্তা পাঠান। কয়েক মাস আগে এই বিজয় মালিয়া বিভিন্ন ব্যাংক থেকে ৯ হাজার কোটি টাকার ঋণ নিয়ে বিদেশে পালিয়ে যান। সেই অপরাধে মোস্ট ওয়া’ন্টেডের তালিকায় আছে মালিয়া।

বহু কোটি টাকা নয়ছয় করার অভিযোগে যাকে দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছে কেন্দ্র, সেই বিজয় মালিয়াই এই করো’না সংকটে সরকারি সাহায্যে আবেদন করলেন। লকডাউনে তাঁর সব কোম্পানি বন্ধ করে দেওয়ায় আর্থিক সাহায্যের দাবি করলেন তিনি। বন্ধ হয়ে যাওয়া এয়ারলাইন্স কিংফি’শারের মালিক বিজয় মালিয়া ২০১৬-র মার্চ মাসে দেশ ছেড়ে পালান। সেই থেকে ইউকে-তে রয়েছেন ৬৩ বছরের এই শিল্পপতি। এদিন তিনি একটি ট্যুইট করে বলেন, ‘ভারত সরকারের লকডাউনের সিদ্ধান্তকে আমি স্বাগত জানাচ্ছি। আমার সব কোম্পানিতেও উত্‍পাদন বন্ধ রয়েছে। এই পরিস্থিতিতেও আমি কারোর বেতন বন্ধ করিনি। কিন্তু এবার সরকারি সাহায্যের প্রয়োজন।’

ভারতের ঋণ ফেরানোর ট্রাইবুন্যাল ঘোষণা করেছে ৬২০০ কোটি টাকা ফেরাতে হবে বিজয় মালিয়াকে। এর মধ্যে ৫০০০ কোটি টাকা মূল অর্থ আর ১২০০ কোটি টাকা সুদ। মালিয়া দাবি করেছেন, এর মধ্যে ৩০০০ কোটি টাকা ইতিমধ্যে ফেরানো হয়ে গিয়েছে। যদিও বিষয়টি নিয়ে কোনও ব্যাঙ্কের পক্ষ থেকে প্রতিক্রিয়া মেলেনি।করো’না আ’তঙ্ক শুরু হওয়ার পর এর আগেও একবার ট্যুইট করে মালিয়া লিখেছিলেন, ‘‌আমি বারবার প্রস্তাব দিচ্ছি, কিংফি’শারের থেকে প্রাপ্য সব টাকা ১০০ শতাংশ ফিরিয়ে দিতে চাই।