ওনলাইনে দেদারসে বিক্রি হচ্ছে গোবরের টুথপেস্ট শ্যাম্পু ও কফি!

0
326

ভারতে গোবর তৈরি হচ্ছে সাবান, শ্যাম্পু, ফেসওয়াশ– এমনকি টুথপেস্টও। আর সেসব ব্যাপক হারে বাজারজাত হচ্ছে সে দেশে। এসব পণ্য কিনতে বিভিন্ন দোকানে ভিড় জমাচ্ছেন ভারতীয়রা। অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট বা ই-বের মতো বড় বড় অনলাইন শপিং সাইটগুলোতে নিয়মিত অর্ডার চলছে। সম্প্রতি ভারত সরকারের এক ঘোষণার পরই গরুজাত পণ্য তৈরি ও ব্যবসায় আগ্রহী হয়েছেন অনেক ভারতীয় ব্যবসায়ী। মোদি সরকারের ঘোষণা ছিল– গরুজাত পণ্যের কোনো উদ্যোগ নিলে তাতে ৬০ শতাংশ পর্যন্ত ঋণ দেবে সরকার।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট নতুন বছরের প্রথম দিন একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ভারতে গরুকে কেন্দ্র করে নতুন নতুন বিভিন্ন ব্যবসা ও উদ্ভাবন নিয়ে।

 

“Would you use a cow dung face wash? They do in India” শিরোনামের ওই প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয় কিভাবে ধীরে ধীরে ভারতের বাজারে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে গরুজাত এমন অনেক পণ্য, যেগুলো এক সময় বানানো যায়- এমনটাই ভাবা যায়নি।

 

২০১২ সাল থেকেই গোবর দিয়ে নানা ধরনের পণ্য তৈরি করছেন কাওপ্যাথি নামের একটি প্রতিষ্ঠানের মালিক উমেশ সনি। ৩৬ বছর বয়সী মুম্বাইয়ের এই বাসিন্দা পেশায় একজন মাইক্রোবায়োলজিস্ট। তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন কাওপ্যাথি নামের একটি প্রতিষ্ঠান। সম্প্রতি তার প্রতিষ্ঠানের তৈরি গোবরের সাবান বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

গোবরের শ্যাম্পু ও টুথপেস্ট তৈরি করা হয় উমেশ সনির প্রতিষ্ঠানে। সম্প্রতি গরুর মূত্র প্রক্রিয়াজাত করে তা থেকে কফিও তৈরি করে সফল হয়েছেন এই মাইক্রোবায়োলজিস্ট। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস নাউ নিউজকে তিনি জানান, প্রথম দিকে কেউ তেমন কিনত না। বিশ্বাসও করত না অনেকে। তখন এসব পণ্য গিফট করতাম। আর গোবরের তৈরি পণ্য পেয়ে সবাই খুশি হতো।

তবে বর্তমানে চিত্রটি পাল্টে গেছে বলে জানান উমেশ। তিনি বলেন, এখন ১৪টি দেশের ৪০০-এর বেশি পাইকারি বিক্রেতা এসে আমার পণ্য নিয়ে যায়। আগে থেকেই টাকা জমা দিয়ে বুকিং দিতে হয় তাদের। বর্তমানে আমার এই প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক টার্নওভার আড়াই কোটি রুপির বেশি।