টিকিয়াপাড়ায় পুলিশের গায়ে লা’থি মা’রা অভি’যুক্তের বাড়িতে ত্রাণ পৌঁছে দিয়ে মানবিকতার নজির গড়লেন প্রশাসন

0
237
Sangbad Pratidin

লক’ডাউনের নিয়ম মানা হচ্ছে না খবর পেয়ে কিছুদিন আগে বিকেলে টিকিয়াপাড়ার বেলিলিয়াস রোডে টহ’লদারি চালাচ্ছিল পুলিশ। ফাঁকা রাস্তায় ক্রিকেট খেলা থেকে শুরু করে, রাস্তার পাশের ঘুপচি দোকানে বিরিয়ানি খাওয়া ও সঙ্গে দেদার আড্ডাও চলছিল রমরমিয়ে। কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীরা তাদের লক’ডাউনের নিয়ম ঠিকঠাক মানতে বলায় উত্তে’জনা ছড়ায় এলাকায়। আর এই নিয়ে কথা কা’টাকা’টির জেরে একসময় শুরু হয়ে যায় তুমুল গন্ড’গোল। হঠাৎ পুলিশ কর্মীদের উপর চ’ড়াও হয় প্রায় ২০০ জন।

এরপরেই বিষয়টি নিয়ে বিত’র্ক শুরু হওয়ার কয়েক জনকে গ্রে’প্তার করে পুলিশ। এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যম asianetnews প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, পু’লিশি জিজ্ঞা’সাবাদে উঠে আসে ওই যুবকের নাম সাকির।

Sangbad Pratidin

পু’লিশকে লক্ষ্য করে চলে ই’ট পাট’কেল ছো’ড়া। যাতে আহ’ত হন দুই পলিশ কর্মী। মাথা ফা’টে দুজনের। পরে ঘটনার ফুটেজ খতিয়ে দেখার পরে পু’লিশকে লা’থি মা’রার ঘটনায় স্থানীয় যুবক সাকিরকে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ। পুলিশকে লা’থি মেরে গ্রে’ফতার হওয়া সাকিরের পরিবারে সেই ছিল একমাত্র রোজগেরে। সাকির গ্রে’ফতার হওয়ায় লক’ডাউনের মাঝে দুশ্চি’ন্তায় পড়ে যান তার পরিজনেরা। আ’ইন অনুযায়ী সাকিরের যা শা’স্তি হওয়ার তা হবে। তবে সাকিরের পরিবারের আর্থিক অবস্থা ভালো নয়। পুলিশের কাছে এই খবর আসতেই গরিব ওই পরিবারটিকে সাহায্য করেছে প্রশাসন।

সূত্র

আরো এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ‍্যম সংবাদ প্রতিদিন এর প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, জে’লব’ন্দি সাকিরের বাড়িতে গিয়ে ৫০ কেজি চাল, ৪০ কেজি আলু, ১৮ কেজি ডাল ও ২০ কেজি আটা তুলে দেয় তারা। এর ফলে প্রচণ্ড আবেগপ্রবণ হয়ে হাওড়া সিটি পুলিশকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছে সাকিরের পরিবারের সদস্যরা। ওইদিন সাকির যে ঘটনা ঘটিয়েছে তার শা’স্তি আই’নে মেনে সে পাবে। কিন্তু, তার জন্য ওর পরিবারের সদস্যরা না খেয়ে ম’রবে এটা হতে পারে না। তাই যতটা সম্ভব সাহায্য করা হয়েছে।

প্রতীকী ছবি

শুধু ওর পরিবারই নয়, হাওড়া এলাকার মধ্যে যেকোনও নাগরিক সম’স্যায় পড়লেই সামর্থ্য অনুযায়ী সাহায্য করা হবে। পুলিশের এই উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন তাঁরা। সং’কটের এই মুহূর্তে যেভাবে অসহায় পরিবারটির পাশে দাঁড়াল প্রশাসন, তা প্রশংসাযোগ্য বলে মনে করছেন এলাকাবাসী। পু’লিশের মানবিক মুখের ছবি দেখে উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়েছে তাদের প্রতিবেশীরাও। যেখানে কয়েকদিন আগেই পু’লিশ কর্মীদের হে’নস্থা করা হয়েছিল সেখানেই জয়ধ্বনি উঠছে তাঁদের নামে, করছেন আ’ক্ষেপও।