ক্ষিদে মেটাতে মাটির তৈরি রুটি খান এখানকার লোকজন! ভিডিওটি দেখলে আপনার চোখেও জল চলে আসবে

0
1159

সারা দুনিয়ায় হাজার হাজার লোক রয়েছেন যারা প্রতিদিন খেতে না পেয়ে মারা যান। এইসব লোকজনের ভাগ্যে দিনে দুবারের খাবারও জোটে না। ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের হাইতি এমনই এক দেশ, যেখানে পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে, লোকজনের খাওয়ার মত কিছুই নেই। এক প্রকার বাধ্য হয়েই সেখানকার লোকজন নোংরা কাদা দিয়ে তৈরি রুটি খাচ্ছেন।

হাইতি এই দারিদ্র্যতা নিয়ে এক পুরনো ভিডিও এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন খেলোয়াড় বীরেন্দ্র সেওয়াগ নিজের ট্যুইটার হ্যাণ্ডেলে এই ভিডিওটি শেয়ার করেন।

চলছে রুটি বানানোর কাজ –

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সেখানকার লোকজন মাটির সাথে নুন আর জল মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করছে। এরপর সেই নোংরা মাটি দিয়ে তৈরি রুটু শুকনো করার জন্য রোদে রেখে দেওয়া হচ্ছে। তারপর সেগুলি শুকিয়ে গেলে নুন মিশিয়ে খাচ্ছে সেখানকার লোকজন। আপনাদের জানিয়ে রাখি যা, হাইতি হল এমন এক দেশ যেখান থেকে কলম্বাস এশিয়া ও ভারত আবিষ্কারের সূত্র পেয়েছিলেন।

মাটি দিয়ে রুটি বানিয়ে খাচ্ছেন এক হাইতির মানুষ –

বীরেন্দ্র সেওয়াগ ভিডিওটি শেয়ার করে সকলকে একটি আবেগময় অনুরোধও করেন। তিনি লেখেন, “দারিদ্রতা! হাইতির লোকজন নুন মেশানো মাটি দিয়ে তৈরি রুটি খাচ্ছেন। দয়া করে আপনারা খাবার নষ্ট করবেন না…”

বীরেন্দ্র সেওয়াগের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে শেয়ার করা ভিডিও –

আপনাদের বলে রাখি যে, হাইতি হল সেই সমস্ত পরিচিত দেশগুলির মধ্যে একটি, যেখানে মোরগ লড়াই সবচেয়ে বেশি প্রসিদ্ধ। কিন্তু এই দেশে চাষবাসের পদ্ধতি সবচেয়ে খারাপ, সেই কারণে খাবারের উৎপাদনও অত্যন্ত কম।

মাটির রুটি রোদে শুকনো করা হচ্ছে –

সংযুক্ত রাষ্ট্রের রিপোর্ট অনুযায়ী অনাহারের কারণে মৃত্যু এখানে লেগেই থাকে এবং এই দেশের সমগ্র জনসংখ্যার ৬০.৭ শতাংশই নিরক্ষর।

তাই সবশেষে বলি, অযথা খাবার নষ্ট করবেন না। আর একান্তই খাবার অতিরিক্ত হলে তা দরিদ্র, অভুক্তদের দিয়ে দিন। আপনাদের মতামত কমেন্ট করে জানান। নিবন্ধটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Source