সাদা কালোর দিন শেষ! এবার পছন্দের রঙিন ছবি দিয়ে করা যাবে ভোটার কার্ড

0
458

এতদিন যে জমানা ছিল যাতে অনেক সময়ই ভোটার নিজেই তাঁর পরিচয়পত্রের ছবি দেখে ভিরমি খেত। ওই ছবিতে যে নিজেকেই যেন চেনা দায়! ছবি জুড়ে কার্বনের কালির ছোপ। চোয়াল উঁচু করে থাকা ভূতের মতো একটা মুখ। কে বলবে এই ‘তিনি’ যে তিনিই! ভোটারকার্ড দেখলেই দেখা যেত খুব গম্ভীর মুখ করে তাকিয়ে আছেন পাড়ার সবচেয়ে হাসিখুশি লোকটা। কারণ ভোটারকার্ডে ব্যাবহৃত ছবি তোলার সময় সিরিয়াস মুখ করে তাকানোই ছিল প্রধান গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

সাদা-কালোর গোমড়া জগৎ থেকে বেরিয়ে এবার সুন্দর হাসিমুখের ছবি দেখা যাবে ভোটার কার্ডে। ভোটার কার্ডে জায়গা পেতে চলেছে ভোটারদের রঙীন ছবি। এই সিদ্ধান্তে বেজায় খুশি নবীন ভোটাররা।

ডিজিটাল হওয়ার তালিকায় ফের আরও একধাপ এগিয়ে গেল ভারত। এবার নির্বাচন কমিশন নতুন ভাবে নাগরিকের পরিচয় পত্র আনতে চলেছে। নতুন রূপে সাজতে চলেছে ভোটার কার্ড। পুরোনো আমলের ভোটার কার্ড বদলে তা সাজতে চলেছে নতুন রঙে। দীর্ঘদিন ধরেই মানুষ পরিচয়পত্র হিসেবে ব্যবহার করতো পাতলা সাদামাঠা ভোটার কার্ড এবং সেটি ছাপানো হত কাগজের উপর এবং সেটি ল্যামিনেশন করে তুলে দেওয়া হত। কিন্তু এবার এই নিয়ম থেকে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে নির্বাচন কমিশন। তবে সেই রীতি ইতি টেনে এবার থেকে নিজেদের ভোটারকার্ডে রঙীন ছবি দিতে পারবেন ভোটারই। শুধু ছবির মাপ হতে হবে পাসপোর্ট সাইজের। সানগ্লাস, স্কার্ফ ইত্যাদি দিয়ে চোখমুখ নাক ঢাকা থাকলে চলবে না। তাহলেই তা ব্যবহার করা যাবে নিজের পরিচয়পত্রে।

তাই এবার ভারতীয় নির্বাচন কমিশনের এই নতুন সিদ্ধান্তে স্বভাবতই খুশি নতুন ভোটাররা। তাদের হাতে তুলে দেওয়া হবে রঙিন এপিক কার্ড। শুধু নবীন ভোটার নয়, এই সুবিধা পাবেন পুরোনো ভোটাররাও। খরচ হবে মাত্র ২৫-৩০ টাকা। তার জন্য আট নম্বর ফর্ম পুরোন করতে হবে। অনলাইনেও আবেদন করা যাবে। ২১ লক্ষ নতুন ভোটার ছাড়াও যারা সংশোধনের জন্য আবেদন করবেন তারাও পাবেন ডিজিটাল এই রঙিন এপিক কার্ড। এই কাজ কর্ণাটকে শুরু হয়ে গিয়েছে।

‘ডিজিটাল’ হচ্ছে সচিত্র ভোটার পরিচয়পত্র বা এপিক কার্ড। তাতে এপিক কার্ডেও যেমন রংয়ের ছোঁয়া থাকবে তেমনই ব্যবহার করা যাবে ভোটারের পছন্দসই রঙিন ছবি। তালিকায় নতুন নাম তোলা ভোটারদের সেই ‘কালার’ এপিক কার্ডই তুলে দেবে নির্বাচন কমিশন। এবার হাতে পাবেন প্লাস্টিক কোটেড এই ডিজিটাল ভোটার কার্ড। নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, মার্চের তৃতীয় সপ্তাহ থেকেই ডিজিটাল কার্ড বিলি শুরু করবে রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দপ্তর। প্রথমে শহরে এবং পরে গ্রামের ভোটারদের ধাপে ধাপে হাতে কার্ড তুলে দেওয়া হবে।

সূত্র –