‘নাগিন ডান্স’ কেন করেছিলেন, এতদিনে জানালেন মুশফিকুর

0
95

মুশফিকুর রহিম নামটা অনেক বছর ধরেই জড়িয়ে আছে বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাথে। নিজের প্রতি+ভা দেখিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে অনেক ম্যাচেই এনে দিয়েছেন জয়। তবে মুশফিকুরকে বিভিন্ন সময়ই সমালোচনার শিকার হতে হয়েছে তার অখেলোয়াড়চিত আচরণের জন্য। ক্রিকেট নিয়ে আবেগ থাকলেও খেলার মাঠে সংযত আচরণ করাটাই কাম্য থাকে। কিন্তু মুশফিকুর এমন সব কাণ্ড ঘটিয়েছেন খেলার মাঠে যার জন্য তাকে শুনতে হয়েছে সমালোচনা। পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ায় হতে হয়েছে ট্রোলড।

নিদাহাস ট্রফির কথা ক্রিকেটভক্তদের নিশ্চয়ই মনে আছ! ফাইনালে দীনেশ কার্তিকের দৌলতে বাংলাদেশকে হারিয়ে ছো মেরে ট্রফি তুলে নিয়েছিল ভারতীয় দল। ওই সিরিজে আরও একটি ব্যাপার জনপ্রিয় হয়েছিল। বাংলাদেশ দলের নাগিন ডান্স।

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ২১৩ রান তাড়া করে ম্যাচ জিতেছিল বাংলাদেশ। ৩৫ বলে ৭২ রানের ইনিংস খেলেছিলেন মুশফিকুর রহিম। ম্যাচ জিতিয়ে তিনি শুরু করে দেন নাগিন ডান্স। তার পর গোটা বাংলাদেশ দল নাগিন্স ডান্স শুরু করে দেয়। কারও সেই নাচ ভাল লেগেছিল। কেউ বলেছিল, বিশ্রী, উদ্ভট।

মুশফিকুরকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, কেন তিনি সেবার ওরকমভাবে নেচেছিলেন। তাতে বাংলাদেশের মিস্টার ডিপেন্ডেবল জানিয়েছেন, আগে থেকে ঠিক করা ছিল না কিছুই। তা ছাড়া ওটা তো নতুন কোন সেলিব্রেশন ছিল না। অপু ভাই (বাঁহাতি স্পিনার নাজমুল অপু) প্রথম শুরু করেছিলেন নাগিন ডান্স।

আমার ইচ্ছে ছিল, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে জিততে পারলে স্পেশাল কিছু করব। ওই ম্যাচের উইনিং রান এসেছিল আমার ব্যাট থেকে। তাই আনন্দের চোটে নাগিন ড্যান্স দিয়েছিলাম। আসলে শ্রীলঙ্কার মাটিতে আমাদের জয়ের রেকর্ড ছিল না। আমরা কখনও ২১৩ রান তাড়া করে টি—২০ ম্যাচ জিতিনি।

বাংলাদেশের স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপু প্রথম নাগিন ডান্স শুরু করেছিলেন। বাঁহাতি এই স্পিনার উইকেট পেলেই অদ্ভুতভাবে নেচে উঠতেন। যা কি না নাগিন ডান্স নাম পায়। তাঁর থেকেই মুশফিকুর সেই নাচ নকল করেন।

ক’রোনা আ’ক্রান্তদের সাহায্যের জন্য নিজের একটি ব্যাট নিলামে তুলেছিলেন মুশফিক। এই দুঃসময়ে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর অঙ্গীকার করেছেন বাংলাদেশের এই জনপ্রিয় ক্রিকেটার।

সূত্র – জি২৪ঘন্টা