ফাইনালের প্রায় সব টিকিট ভারতীয়দের কাছে, মাথায় হাত ইংল‍্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটপ্রেমীদের

0
784

নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে সেমিফাইনালে লড়াই থেকেই বিদায় নিয়েছে কোহলির দল। প্রসঙ্গত কারণেই চলতি বিশ্বকাপের ফাইনালে নেই ভারত। অথচ কি কাণ্ড! ফাইনালে ভারত উঠছে ৷ এমনটা প্রায় ধরেই নিয়েছিলেন বিলেতের ভারতীয় সমর্থকরা ৷ বিশ্বকাপ ফাইনালের টিকিট পাওয়াটা যেহেতু কঠিন৷ তাই কোনও ঝুঁকি না নিয়ে ফাইনালের সব টিকিট আগেভাগেই কেটে নিয়েছিলেন ভারতীয় সমর্থকরা। আর এতে টিকিট নিয়ে হাহুতাশ করছেন নিউজিল্যান্ড-ইংল্যান্ডের দর্শকরা। আর এ বিষয়টি নিয়ে রীতিমত ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ইল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড ফাইনাল দেখতে অধিকাংশ ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরই ইচ্ছেটা কম। কিন্তু এত দাম দিয়ে ফাইনালের টিকিট কেটে খেলা না দেখলেও আবার নয়। ভারতীয়রা আগেভাগেই ফাইনালের অধিকাংশ টিকিট কেটে নেওয়ায় এখন সমস্যায় পড়েছেন ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের সমর্থকরাও। কারণ তারা ফাইনালের টিকিট পাচ্ছেন না।

প্রিয় দলের ফাইনাল খেলা কিভাবে দেখবেন ইংলিশ ও কিউই দর্শকরা? আর এতগুলো টিকিট কিনে নেওয়া ভারতীয় দর্শকরাই বা কি করবেন ওই টিকিট দিয়ে? তারা কি গ্যালারীতে বসে দেখবেন ভারতহীন ফাইনাল! নাকি বিক্রি করে দেবেন? এ প্রশ্নই এখন হয়ে উঠেছে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ। বিষয়টি হাস্যকরও ভাবতে পারেন অনেকে।

কিন্তু ভারতীয়দেরই বা কী দোষ বলুন! গোটা বিশ্বকাপে ভারতীয় ক্রিকেট দলের এমন দুর্দান্ত পারফরম্যান্স, সমর্থকরা তো ধরেই নিয়েছিলেন কোহলিরা ফাইনালে খেলবেনই। আর এ ভাবনা থেকেই লর্ডসে অনুষ্ঠিতব্য ফাইনালের ৯০ ভাগ টিকিটই আগাম কিনে রেখেছিলেন ভারতীয় দর্শককুল। কিন্তু বিধি বাম! ভাবনায় ছিলো কী আর ঘটে গেল কী! কিউইদের কাছে হেরে সেমি থেকেই বিদায় নিতে হলো বিরাট কোহলিদের।

এখন লাখ নয়, কোটি টাকার প্রশ্ন হচ্ছে- তাহলে ভারতীয় দর্শকরা কী করবেন? তারা কি খেলা দেখতে আসবেন? নাকি টিকিট হাতবদল করবেন? নিরেট ক্রিকেটভক্ত হলে ফাইনালের সাক্ষী হওয়ার সুযোগটা হাতছাড়া করতে চাইবেন না অনেকেই। নতুন চ্যাম্পিয়নকে ট্রফি হাতে দেখার রোমাঞ্চ তো আছেই।

আবার অনেকেই হয়তো প্রিয় দল ভারত না থাকায় তেমন কোন উৎসাহই বোধ করবেন না! এ ক্ষেত্রে টিকিট বদল করতেই পারেন তারা। বিক্রি করে দিতে পারেন এখনো টিকিট না পাওয়া কোনো উৎসাহী ইংলিশ অথবা কিউই দর্শকের কাছে। কেউ কেউ হয়তো ব্যবসা করে এ সুযোগে কামিয়েও নিতে পারেন টু-পাইস।

এর আগে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টও কোহলিরা নিশ্চিত ফাইনালে খেলবে ধরে নিয়েই বিমানের টিকিট কাটেনি সেমিতে হারার পরও। ফলে দুইদিন হয়ে গেলেও এখনও তারা ইংল্যান্ডই ছাড়তে পরেনি। পারবে না ১৪ তারিখের আগ পর্যন্তও। তার ওপর ভারতীয় দর্শকদের এই কাণ্ড।

রবিবার (১৪ই জুলাই) বিশ্বকাপের কাঙ্ক্ষিত ফাইনালে প্রথমবারের মত মুখোমুখি ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের এটি টানা দ্বিতীয় ফাইনাল। আর ইংল্যান্ড ফাইনালে উঠেছে ২৭ বছর পর। তাই এবারের ফাইনালের মেজাজটাকে ভিন্নমাত্রা দিয়েছে এ দুই দল। এর আগে তিনবার ফাইনালে উঠে শিরোপা জিততে না পারা ইংল্যান্ড কিংবা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে ওঠা নিউজিল্যান্ড—নতুন ইতিহাসই তৈরি হতে যাচ্ছে। অর্থাৎ যে দলই শিরোপা জিতুক, নতুন এক চ্যাম্পিয়নকে পেতে যাচ্ছে ক্রিকেটবিশ্ব।

নিউজিল্যান্ডের অলরাউন্ডার জিমি নিশাম তাই বলেছেন, ভারতীয়রা যদি ম্যাচ না দেখতে যান। তাহলে টিকিটগুলো যেন আইসিসি-কে ফেরত দিয়ে যান তারা। নিউজিল্যান্ড বা ইংল্যান্ডের সমর্থকেরা তাহলে মাঠে বসে ফাইনালের আমেজ উপভোগ করতে পারবেন।

সবমিলিয়ে ভারতীয়দের এমন অদ্ভুত কাণ্ডে খুবই মজা পাচ্ছেন অনেক ভারতবিরোধী দর্শক-সমর্থক। রীতিমত মুখে টিপে হাসছেন, ব্যাঙ্গও করছেন অনেক। যার কিছু কিছু প্রতিফলন দেখা গেছে সোশ্যাল মিডিয়াতেও। তাদের উক্তি- পাশার দান উল্টে যাওয়াটাই তো খেলার আসল মজা।