গুজবে বিশ্বাস করে, মদের দোকানে লাইন দিয়ে এপ্রিল ফুল হলেন বহু মানুষ

0
1002
প্রতীকী ছবি

খবরটা রটছিল ৩১শে মার্চ বিকেল থেকেই। কী, না, পরেরদিন কয়েক ঘণ্টার জন্য মদের দোকান খোলা হবে। পরেরদিন অর্থাৎ বোকা বানানো ও বনার দিন। সেই ‘এপ্রিল ফুল’ করতেই কে বা কারা খবরটা ছড়িয়ে দিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ব্যাস, লকডাউনের মাঝেই একরাশ আতঙ্কের মধ্যেই মদের দোকান খোলার গুজবে এ দিন হুলস্থূল কলকাতা-সহ গোটা রাজ্য জুড়ে। বুধবার ভোর থেকে লম্বা লাইন রাজ্যের বহু মদের দোকানের সামনে।

টানা আট দিন পর মদের দোকান খোলার ‘সুসংবাদ’ পেয়ে অনেকেই সুযোগ হাতছাড়া করতে চাননি। সত্যটা জানার পর অবশ্য তাঁদের সবাইকে নিরাশ হয়েই বাড়ি ফিরতে হয়েছে। পরে তারা সবাই জানতে পারে, পুরোটাই মিথ‍্যা।

প্রতীকী ছবি

করোনা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কেউ গুজব ছড়ালে তাঁর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে বলে বার বার সতর্ক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মাও লাগরিকদের এই কাজ থেকে বিরত থাকতে বলেছেন। তাই, করোনা বা লকডাউন নিয়ে কেউ এপ্রিল ফুল করার ঝুঁকি নেননি। তার বদলে হাতিয়ার করা হয়েছে মদের দোকানকে। অনেকেই টানা বাড়িতে থাকার ফলে দিন ও তারিখের খেয়াল রাখেননি, ফলে এমন গুজবের ফাঁদে পরতে হয়েছে। সব কিছুকে সম্ভবত ছাপিয়ে গেল মদের দোকান খোলা নিয়ে এ দিন বাঙালির এপ্রিল ফুল হওয়া।

প্রতীকী ছবি

বিষয়টিকে বিশ্বাসযোগ্য করে তুলতে একটি বাংলা নিউজ চ্যানেলের স্ক্রিনশট ব্যবহার করে তাতে সুপার ইম্পোজ করে লিখে দেওয়া হয়, বুধবার সকাল ৬টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত মদের দোকান খোলা থাকবে। সেই খবর মতো কলকাতা-সহ গোটা রাজ্য জুড়েই সকাল থেকে বিভিন্ন মদের দোকানের বাইরে লাইন লক্ষ করা যায়। মদের দোকানের বাইরে অপেক্ষারত এক যুবক, সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ‍্যম এই সময়-কে জানান ‘মঙ্গলবার রাতে টিভি-র খবরে দেখিয়েছে, আজ মদের দোকান খোলা।’ তিনি নিজে কি টিভি-তে ওই খবর দেখেছেন? ওই যুবক জানান, সোশ্যাল মিডিয়া থেকে তিনি জানতে পারেন যে, টিভি-তে ওই খবর দেখিয়েছে।