দিদির হবু স্বামীকে ছিনিয়ে নিয়ে বিয়ে করল বোন, দিদি ধর্ষণের অভিযোগ আনলো ভগ্নিপতির বিরুদ্ধে

0
978
প্রতীকী ছবি

প্রায় সাড়ে পাঁচ বছর ধরে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দিনের পর দিন সহবাস করে শেষে বোনকে বিয়ে করলেন এক যুবক। উত্তর কলকাতা এলাকার বাসিন্দা ওই তরুণী হঠাৎই করেই জানতে পারেন যে, তারই হবু স্বামী এখন তার ‘ভগ্নিপতি’ হয়ে গেছেন। ওই যুবকের কাছে তার আর বিন্দুমাত্র জায়গা নেই। তার বোনই ছিনিয়ে নিয়েছে তার হবু স্বামীকে। আর এই আঘাত মেনে নিতে পারছেন না অভিযোগকারিণী।

তাই কয়েকদিন আগে বিয়ে হওয়া ওই ‘ভগ্নিপতি’র বিরুদ্ধে তিনি সিঁথি থানায় এক ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেছেন। তার সঙ্গে তিনি মারধর ও নারী নির্যাতনের মতন বিভিন্ন অভিযোগ যুক্ত করে দেন।

প্রতীকী ছবি

ঘটনাটি শুরু হয় ২০১৫ সালে। সিঁথির দমদম রোড এলাকার বাসিন্দা অভিযুক্ত যুবকের সঙ্গে পরিচয় হয় উত্তর কলকাতা এলাকার বাসিন্দা ওই তরুণীর। তখন থেকেই দু’জনের মধ্যে মেলামেশা বাড়তে থাকে। তরুণী জানান, ”তখন নাবালিকা থাকাকালীনই অভিযুক্ত যুবক তাকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দেয়। যুবক তাকে জানায় তিনি সাবালিকা হলেই বিয়ে করবে তাকে।” এই প্রতিশ্রুতি দিয়ে তরুণীকে ওই ‘বন্ধু’ যুবক বারংবার দমদম রোডে নিজের বাড়িতে নিয়ে যায় এবং তাকে ওই বাড়ির মধ্যে একাধিকবার ধর্ষণ করে বলেও অভিযোগ করেন তরুণী।

এখানেই শেষ নয়, তাকে কয়েকটি জায়গায় বেড়াতে নিয়ে গিয়েও ওই যুবক ধর্ষণ করে বলে অভিযোগে করেন তরুণী। তরুণী সাবালিকা হওয়ার পর যুবককে বিয়ে করার কথা বলেন। কিন্তু যুবক বিয়ের প্রসঙ্গ এলেই তাঁকে বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে এড়িয়ে যেত। এমনকি তরুণী জোর করতে শুরু করলে তাকে মারধরও করা হতো বলে জানিয়েছেন তিনি। সঙ্গে হুমকি দিতে থাকে এই যুবক। যদিও এইসবের মধ্যেও এই অভিযোগকারিণীর সঙ্গে সম্পর্ক ছেড়ে দেয়নি ওই যুবক। এমনকি এই বছরেও অভিযোগকারিণীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে জানান তিনি। দীর্যদিন এই তরুণীর সঙ্গে মেলামেশার হওয়ার সুবাদে তার বোনের সঙ্গে পরিচয় হয় যুবকের। আর এটিই হয় নাটকের আরেক মোড়।

প্রতীকী ছবি

অভিযোগকারিণী তরুণী তখনও বুঝতে পারেননি যে, তার চোখ এড়িয়ে সেই যুবক ধীরে ধীরে তার বোনের সাথে মেলামেশা শুরু করেছে। তারই চোখের আড়ালে দু’জনের মধ্যে তৈরি হয়ে গিয়েছে মাখোমাখো সম্পর্ক। তরুণী বলেন, গতমাসেই পুরো ব‍্যাপারটা সামনে আসে আর তখনই পাশাপাশি বাড়ির লোকের সামনে তরুণীর বোন বলেন, দিদির ‘হবু স্বামীকে’ই তিনি বিয়ে করবেন। আর তাতেই রাজিও হয়েছে ওই যুবক এবং তার পরিবারের লোকেরা। এর মধ্যে তরুণীর বোনের চাপে মেয়ের বাড়ির লোকেরাও ওই যুবকের সঙ্গে বাড়ির ছোট মেয়েকেই বিয়ে দিয়ে দেন। এরপরেই তরুণী ভেঙে পড়েন ও সিঁথি থানায় ধর্ষণ ও মারধরের অভিযোগ জানান।

সূত্র – সংবাদ প্রতিদিন