জলের কল খুললেই বের হচ্ছে ম’দ! গৃহস্থ বাড়ি হয়ে গেল শুড়িখানা

0
111

বাথরুমের কল খুলতেই ছড় ছড় করে গড়াতে লাগল ম’দের স্রোত! সু’রাপ্রেমীদের স্বপ্নসুখ নয়, বাস্তবে ঠিক এমনই অবাক করা দৃশ্যের সাক্ষী থাকলেন কেরালার চালাক্কুডি শহরের বাসিন্দারা। সাত-সকালে আজব অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হলেন শহরের সলমন অ্যাভিনিউয়ের এক আবাসনের অধিবাসীরা। জলের কল খোলা মাত্র ম’দের গন্ধ ভরে উঠল স্নানাগার, শৌচালয়, এমনকি রান্নাঘর পর্যন্ত। খোঁজ নিয়ে দেখা গেল, আবাসনের অন্তত ১৮টি পরিবারই কল থেকে ম’দের ধারা গড়াতে দেখেছেন।

তার পর সেখানকার ১৮টি পরিবার বিষয়টি চালাকুডি মিউনিসিপ্যাল সেক্রেটারির নজরে আনেন ও স্বাস্থ্য দফতরে জানান। তাঁরা বিষয়টির খোঁজ নিতেই উঠে আসে প্রকৃত সত্য। জানা যায়, আবগারি দফতরের ‘ভুলের’ জন্যই এই অবস্থার সম্মুখীন হতে হয়েছে সেখানকার বাসিন্দাদের।

প্রতীকী ছবি

জানা গিয়েছে, ঘটনার সূত্রপাত বছর ছ’য়েক আগে। এই এলাকার কাছেই ছিল একটি পানশা’লা। অবৈ’ধভাবে মজুত করার জন্য সেখান থেকে ছ’হাজার লিটার ম’দ বা’জেয়াপ্ত করেছিল আবগারি দফতর। তার পর আদালত ওই ম’দ নষ্ট করে দেওয়ার নির্দেশে দেয়। সেই মতো আবগারি দফতর ঠিক করে, ওই পানশা’লার জমিতেই নষ্ট করে দেওয়া হবে বা’জেয়াপ্ত বিপুল পরিমান ম’দ।

প্রতীকী ছবি

সম্প্রতি আদালত ওই বা’জেয়াপ্ত ম’দ নষ্ট করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। আবগারি দপ্তরের কর্তারা ওই বার সংলগ্ন এলাকায় মাটিতে একটি গর্ত খনন করে এবং এক-এক করে ওই অবৈ’ধ ম’দের বোতলগুলি সেখানে খালি করে। পুরো কাজটা করতে ছয় ঘন্টার উপর সময় লেগেছিল। কিন্তু, সেই কাজে যে একটা ভয়াবহভাবে ভুল হয়ে গিয়েছে, তা তাঁরা কল্পনাও করতে পারেননি।

প্রতীকী ছবি

যেখানে ওই অবৈ’ধ ম’দ নষ্ট করা হয়, তার খুব কাছেই ছিল সলোমনস অ্যাভিনিউ-এর ওই আবাসনের জলের কূপ। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, নষ্ট করা অ্যাল’কোহল ধীরে ধীরে মাটিতে প্রবেশ করে ওই কূপের জলের সঙ্গে মিশে গিয়েছে। আর তার থেকেই ওই আবাসনের জলের ট্যাঙ্কে ম’দ মেশানো জল চলে আসছে। কল খুললেই পড়ছে ম’দ। এর জেরে ওই আবাসনের বাসিন্দাদের চান, খাওয়া বন্ধ হওয়ার জোগার।

প্রতীকী ছবি

জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন না গেলে ওই ম’দের প্রভাব কাটবে না। অসন্তুষ্ট বাসিন্দারা আবগারি কর্মকর্তাদের বিরু’দ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য চালকুড়ি-র পৌর সচিব ও স্বাস্থ্য বিভাগে আবেদন করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here