খেলোয়াড় এবং অভিনেতারা নিজেদের বায়োপিকের জন্য কত টাকা নিয়েছিলেন, জানলে অবাক হবেন

0
833

ভারত আমাদেরকে অনেক অনুপ্রেরণীয় ক্রীড়াবিদ এবং কিংবদন্তী দিয়েছে যারা দেশকে গর্বিত করেছে। অন্যদিকে, বলিউড আমাদেরকে ঐসব ক্রীড়াবিদদের আত্মজীবনীর উপর সিনেমা উপহার দিয়েছে। বলিউড আমাদেরকে সত্য সংগ্রাম, কঠোর পরিশ্রম এবং এই ক্রীড়া-তারকা এবং অভিনেতাদের বড় হওয়ার যাত্রা আমাদের সিনেমার মাধ্যমে দেখিয়েছে। সিনেমাগুলি বক্স অফিসে কোটি কোটি কোটি টাকা আয় করে, অভিনেতাদের প্রচুর পরিমাণে অর্থ প্রদান করা হয়, আপনি কি কখনও ভেবেছেন যে এই খেলোয়াড়রা বা অভিনেতারা তাদের বাস্তব জীবনের গল্পগুলি ঋণ দেওয়ার জন্য কতটা অর্থ নিয়েছেন?

আজ আমরা আপনাদের সামনে সেই তালিকায় নিয়ে এসেছি যেখানে দেখতে পাবেন বিভিন্ন ক্রীড়া তারকা এবং অভিনেতারা তাদের বায়োপিকের কি পরিমাণ টাকা নিয়েছেন। আসুন দেখে নেওয়া যাক তালিকাভুক্ত ক্রীড়াবিদদের।

১. মেরি কম

মেরি কমের অনুপ্রেরণামূলক গল্পে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া মূখ্য চরিত্রে অভিনয় করেন। একজন মহিলা বক্সারের গল্প হওয়া সত্ত্বেও চলচ্চিত্রটি বিশাল সাফল্য পায় এবং দর্শকদের মনে বিশাল প্রভাব ফেলে। মেরি কমকে তার গল্পের জন্য ২৫ লাখ টাকা দেওয়া হয়।

২. মিলখা সিং

ফারহান আখতার তাঁর ব্লকবাস্টার মুভিতে কিংবদন্তি মিলখা সিংকে চিত্রিত করেন। ফারহান তার কঠোর পরিশ্রম ও উৎসর্গীকৃত এই চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন যা তাকে আরও বেশি খ্যাতি অর্জন করতে সাহায্য করে। এবং মিলখা সিং এই ছবির জন্য মাত্র ১ টাকা নেন।

৩. শচীন টেন্ডুলকার

শচীন টেন্ডুলকারের আত্মজীবনিমূলক সিনেমা শচীন দা বিলিয়ন ড্রিমস বক্স অফিসে মাত্র দুদিনে ১৭ কোটি টাকা আয় করে। নানারকমের গুজন শোনা যায় যে শচীন এই সিনেমার জন্য ৪০ কোটি টাকা নেন কিন্তু পরে জানা যায় এটি সম্পূর্ণ অসত্য। শচীন এই সিনেমার জন্য কোনো টাকাই নেননি, উপরন্তু সিনেমা নির্মাণের কাজে সহায়তা করেন।

৪. এম. এস. ধোনি

মহেন্দ্র সিং ধোনির অনুপ্রেরণাত্মক জীবন কাহিনীটি এম.এস. ধোনি, দা আনটোল্ড স্টোরিতে চমৎকারভাবে চিত্রায়িত হয়েছে। সুশান্ত সিং রাজপুত মহেন্দ্র সিং ধোনির ভূমিকার চিত্রকল্পে চমৎকার কাজ করেছেন। ধোনি সিনেমাটির জন্য ৮০ কোটি টাকা চার্জ করেছিলেন।

৫. মহাবীর সিং ফোগট

আমির খান-এর সুপার ব্লকবাস্টার সিনেমাটি শুধু ভারতে নয়, তবে বিশ্বের অন্যান্য অংশেও বেশ বড় হিট ছিল। মহাবীর সিং ফোগট এবং তার দুই কন্যার অনুপ্রেরণামূলক গল্প, গীতা এবং বাবিতা প্রত্যেকের হৃদয় ছুঁয়ে যায়। দঙ্গল সব সম্ভাব্য রেকর্ড ভেঙে দিয়ে ২০০০ কোটি টাকা আয় করে। তার গল্পের জন্য মহাবীর সিং ফোগটকে ৮০ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছিল।

৬. পান সিং তোমর

ইরফান খান পান সিং তোমরের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন। তার পরিবারকে তার জীবনের গল্পের উপর সিনেমা তৈরীর জন্য ১৫ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছিল।

৭. মহম্মদ আজহারউদ্দিন

মহম্মদ আজহারউদ্দিন তার বায়োপিকের জন্য একটি টাকাও নেননি। ইমরান হাসমি আজহারউদ্দিনের ভূমিকা দারুণভাবে পর্দায় তুলে ধরেন এবং বিপুল সমৃদ্ধি অর্জন করেছেন।

৮. সঞ্জয় দত্ত

আরেকটি অসাধারণ বায়োপিক ‘সঞ্জু’, যা বছরের সবচেয়ে বেশি প্রত্যাশিত চলচ্চিত্র, খুব শীঘ্রই সিনেমা হলে মুক্তি পাবে। আমরা সবাই জানি যে, রণবীর কাপুরের চিত্তাকর্ষকভাবে সঞ্জয় দত্তের চরিত্রটি ফুটিয়ে তোলার জন্য সিনেমাটি একটি ব্লকবাস্টার হিট হতে চলেছে। সঞ্জয় দত্ত এই সিনেমার গল্পের জন্য কোনোও টাকা নেননি, তবে তিনি সিনেমার লাভের কিছু অংশ নেবেন বলে জানিয়েছেন।

source