ঋষিকেশের লক্ষ্মণ ঝুলার উপর ন’গ্ন ভি’ডিও বানানোয় ফরাসি নারী গ্রে’প্তার

0
312

ভারতের উত্তরখণ্ডের ঋষিকেশ শহরে এক বিচিত্র ঘটনা ঘটেছে। ফ্রান্সের এক নারী শহরের একটি পবিত্র সেতুর উপর অর্ধন’গ্ন অবস্থায় ভিডিও বানানোর পর তা ভাইরাল হয়েছে। এরপর এ নিয়ে তৈরি হয়েছে হাজারো প্রশ্ন। এ ঘটনায় ওই নারীকে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ। ভারতের লকডাউন জারির পর ২৭ বছর বয়সী ওই নারী পর্যটক ঋষিকেশেই রয়েছেন। শুক্রবার ভিডিও প্রকাশ হওয়ার পরে ওই নারীকে ট্র্যাক করা হয়।

সেখানে তাকে এবং আরেকজন নারীকে লক্ষ্মণ ঝুলা সেতুর উপরে “অর্ধন’গ্ন” অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। গঙ্গা নদীর উপরের ওই সেতুটি একটি পবিত্র স্থান এবং দর্শনার্থীদের জন্য মনোরম স্থান।

ফেসবুকে আপলোড করা ছবিগুলি গভীরভাবে আ’পত্তিকর বলে প্রমাণিত হয়েছিল, স্থানীয় কাউন্সিলের সদস্যরা ভারতীয় আ’ইন অনুসারে পু’লিশে অ’ভিযোগ দা’য়ের করেছেন। স্থানীয় পু’লিশ বলছে যে রত্ন পাথর বিক্রি করার ব্যবসায়ের প্রচারমূলক ফটোশুটের অংশ ছিল। তবে ম্যারি-হেলিন নামের ওই নারী বলেছিলেন যে ফটোশুট যৌ’ন হ’য়রানির বি’রুদ্ধে একটি প্র’তিবাদ ছিল।

তিনি বলেন, “আমি লক্ষ্মণ ঝুলার উপর আংশিকভাবে উদ্বোধন করতে বেছে নিয়েছি কারণ প্রতিবার যখন সেতুটি পেরিয়েছি তখন মনে হয়েছিল যে আমাকে যৌ’ন হ’য়রানি করা হচ্ছে। আমার ভারতীয় বোন এবং সহযাত্রী ভ্রমণকারীরা অবশ্যই এটির অভিজ্ঞতা পেয়েছিলেন।

তবে এই ঘটনার পর মেরি-হেলিন ক্ষ’মা চেয়ে জানিয়েছিলেন, সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট্যের বিষয়ে সচেতনতার অভাব ছিলো তার। অন্য আরেকজন নারীর পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি, এবং রাজ্য এখনও স্থানীয় ফটোগ্রাফারদের সন্ধান করছে যারা এই কর্মের সাথে জড়িত ছিল।

সংগৃহীত – কালের কন্ঠ