আয়ু দীর্ঘ করতে প্রতিদিন পান করুন বিয়ার অথবা ওয়াইন – জানাচ্ছে গবেষণা

0
515

মদ্যপান এই শব্দটি শুনলেই যেন একটি ধারণা ভেসে ওঠে শরীরের চরম ক্ষতি। আমরা সবাই জানি যে অ্যালকোহল মৃত্যু পর্যন্ত নিয়ে যেতে পারে মানুষকে। অথচ কিছুদিন আগে গবেষণার মাধ্যমে জানা যায় যে অ্যালকোহল নাকি শরীরের পক্ষে ক্ষতিকর নয়। গবেষকদের মতে অ্যালকোহল শরীরের পক্ষে প্রিয় হতে পারে তারা বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে এই মতামত জানিয়েছে। গবেষকদের মতে আয়ু বাড়তে পারে যদি প্রতিনিয়ত অর্ধেক পিন্ট বিয়ার খাওয়া হয়।

শুনতে গল্পকথা হলেও বিষয়টি সত্য। একটি গবেষণা অনুযায়ী, দীর্ঘ আয়ু পেতে গেলে যে পাঁচটি জিনিস প্রয়োজনীয় তার মধ্যে অ্যালকোহল অন্যতম। জানা গিয়েছে, নিয়মিত নির্দিষ্ট পরিমাণে অ্যালকোহল পান করলে আপনি ৯০ বছর পর্যন্ত বাঁচতে পারবেন।

কারণ বিয়ারে অ্যালকোহলের পরিমাণ খুবই সামান্য থাকে বেশি থাকে। তাই খুব স্বাভাবিক ভাবেই গবেষকরা বলেন যে একজন সাধারন মানুষ যেহেতু প্রতিনিয়ত ওয়েলকাম পান করেন না তার থেকে বেশি আয়ু থাকে সেই মানুষটির চেয়ে প্রতিনিয়ত বিয়ার পান করে। নেদারল্যান্ডের এক গবেষণাগারে গবেষকরা জানান যে যদি শরীরে আলাদা করে কোনো অসুখ না থাকে তাহলে নব্বই বছর বাঁচতে পারে শুধুমাত্র প্রতিনিয়তই বিয়ার খেয়। এই গবেষণাটি করতে গিয়ে গবেষকরা লক্ষ্য করেছেন প্রতিনিয়ত পাঁচ হাজার মানুষকে যারা বিয়ার খাচ্ছেন এবং তাদের শরীরে কোনো অসুখের সৃষ্টি হচ্ছে না আর শুধু তাই নয় তারা দীর্ঘদিন ধরে সুস্থভাবে বেঁচে রয়েছেন।

প্রতীকী ছবি

গবেষণায় জানা গিয়েছে, মদ্যপান করেন না এমন মানুষদের থেকে যেসব মানুষ প্রতিদিন দুই গ্লাস বিয়ার অথবা ওয়াইন পান করেন তাদের অকালমৃত্যুর সম্ভাবনা ১৮ শতাংশ কমে যায়। পাশাপাশি বাড়তি ওজনও অকালমৃত্যুর সম্ভাবনা ৩ শতাংশ কমিয়ে দেয়। তবে অত্যাধিক ওজনের ফল হিতে বিপরীত হতে পারে। টেক্সাসের অস্টিনে আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা আয়োজিত বিজ্ঞানের অগ্রগতি বার্ষিক সম্মেলনে বক্তৃতা দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘‘আমি কোন ব্যাখ্যা দিতে পারব না। কিন্তু আমি দৃঢ় বিশ্বাস করি যে নির্দিষ্ট পরিমাণে মদ্যপান দীর্ঘায়ুর সহায়ক।’’

প্রতীকী ছবি

বিয়ার পান করা হয় তখন প্রায় ৬% মত অ্যালকোহল শরীরে যায় এবং তার সাথে সাথে যায় ২০৯ মত ক্যালরি। আর এই সমস্ত কিছুই একটি মানুষকে সুস্থ ভাবে বাঁচিয়ে রাখতে সাহায্য করে আর তাছাড়া বিয়ারের মধ্যে যে উপাদান পাওয়া যায় সে উপাদান মানুষের ক্যান্সার এবং হৃদ রোগ থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করে। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের মেডিক্যাল আধিকারিক জানিয়েছেন, মহিলা ও পুরুষদের সপ্তাহে ১৪ ইউনিট অর্থাৎ ৬ বোতল বিয়ার অথবা সাত গ্লাস ওয়াইনের বেশি মদ্যপান করা উচিত নয়। এই নির্দিষ্ট পরিমাণের অ্যালকোহল সপ্তাহের সাতদিন সমান ভাগে ভাগ করে পান করতে হবে।

প্রতীকী ছবি

প্রতিনিয়ত আলকোহল খেতে পারে না বা অনেকে মদ্যপান করলে অসুস্থ অনুভব করে সেই ক্ষেত্রে জোরজবরদস্তি অ্যালকোহল পান করা উচিত না। কারন সবার শরীর সমান হয় না কেউ যদি মদ্যপানে প্রতিনিয়ত অভ্যস্ত না থাকে তাহলে জোর করে অ্যালকোহল পান করা শরীরের জন্য ক্ষতিকারক আর তাছাড়া অতিরিক্ত পরিমাণে অ্যালকোহল শরীরে প্রবেশ করা তা স্বাস্থ্যকে অবশ্যই ক্ষতিগ্রস্ত করে তোলে। এই সব জিনিসগুলি আয়ু বাড়াতে সহায়তা করলেও এগুলির নেতিবাচক প্রভাব থেকে মুক্তি পাওয়া যাবেনা। এবিষয়ে তাঁর পরামর্শ, বেশি বয়স অব্দি বাঁচার জন্য এইসব জিনিসগুলি যতটা সম্ভব ততটা এড়িয়ে চলাই ভালো। কারণ এগুলি দীর্ঘায়ুর পরিপন্থী হলেও সুস্বাস্থ্যের কোন নিশ্চয়তা দেয়না।

সূত্র – ১