বিয়ের পিঁড়ি থেকেই প্রাক্তন প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে গেলেন কনে!‌

0
529

‘‌প্রেম যে কাঁঠালের আঠা লাগলে পরে ছাড়ে না ’‌.‌.‌.‌.‌ এ লাইন তো আমরা সকলেই কম বেশি শুনেছি। কিন্তু সেই ফাঁদ বিয়ের পিঁড়ি থেকে কনেকে তাঁর পুরোনো প্রেমিকের কাছে নিয়ে গেল। সব ঠিকঠাক চলছিল, মণ্ডপ সেজে উঠেছিল, আমন্ত্রিতরা এসে গিয়েছিলেন। বিয়েও প্রায় সারা হয়ে এসেছিল। এমন সময় হঠাত্ মণ্ডপ থেকে উঠে গেলেন কনে। তা বোধহয় শুধুমাত্র সিনেমা বা টিভি সিরিয়ালেই দেখতেই অভ্যস্ত মানুষজন।

এবার সেই ঘটনা ঘটল বাস্তবে। আর হাঁ করে দেখলেন নিমন্ত্রিতরা। তেলঙ্গানার বনপর্তি জেলার চার্লাপল্লিতে  বিয়ের আসর বসেছিল। সব রীতি-রেওয়াজ মেনে বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। মন্ত্রোচ্চারণের সঙ্গে চলছিল চার হাত এক করার প্রক্রিয়া।

প্রতীকী ছবি

এক সময় পুরোহিতের নির্দেশে পাত্র হবু স্ত্রীর গলায় মঙ্গলসূত্র পরিয়ে দিতে যান। কিন্তু তাঁর হাত সরিয়ে দিয়ে উঠে দাঁড়ান কনে। সবার সামনে মুখে উপর বলে দেন তিনি এই বিয়ে করবেন না। আসলে মঙ্গলসূত্র পরার আগে এই নিয়ম যে সময়ে চলছিল, কনে দেখেন সেখানে হাজির তাঁর প্রাক্তন প্রেমিক!‌ আর মনের টান অস্বীকার করতে পারেননি তিনি। সকলের সামনেই বলে বসেন, বিয়ে তিনি করবেন না। প্রাক্তনের সঙ্গেই যেতে চান। মাথায় হাত পড়ে আত্মীয় থেকে পরিচিত সকলেরই। অনেকে বোঝানোর চেষ্টাও করেন তাঁকে। কিন্তু মনের কাছে অনেক মাথাও যে পরাজিত হয়, সে কথা আবার প্রমাণ করে দিলেন কনে।

প্রতীকী ছবি

প্রথমে সবাই হকচকিয়ে যান। ভাবেন সবই তো ঠিক ছিল, কী হল হঠাত্। নিমন্ত্রিত, আত্মীয় স্বজন, সবারই আকাশ থেকে পড়ার অবস্থা। বর পক্ষের তরফে কনের মণ্ডপ ছেড়ে যাওয়া আটকানোর চেষ্টা হয়। কিন্তু কনে বিয়ে করতে রাজি নন, তিনি শেষ পর্যন্ত মণ্ডপ ছেড়ে বেরিয়ে যান। পাত্র পক্ষের দাবি, এই বিয়েতে কনের প্রাক্তন প্রেমিকও আমন্ত্রিত ছিলেন। কনে বিয়ে করতে না চাওয়ার কারণ হল সেই যুবকের উপস্থিতি। তাঁরা দেখেছেন, ওই যুবককে মণ্ডপে দেখতে পাওয়ার পরই কনে এই বিয়ে না করার সিদ্ধান্ত নেন। বরপক্ষের লোকজন নাকি কনের এই প্রাক্তন প্রেমিককে ধরার চেষ্টাও করেন। কিন্তু ওই যুবক দৌড়ে পালিয়ে যান।