বলিউড অভিনেত্রীদের মডেলিংয়ের সময়ের এই ছবিগুলি তাঁরা নিজেরাও দেখতে চাইবেন না!

0
1705

ফেসবুক খুললেই প্রতিদিন আমরা কোনো না কোনো মেমরি দেখতে পাই। যার মধ্যে কখনো কখনো ৪-৫ বছরের পুরনো ছবি হঠাৎই আমরা দেখতে পাই। সেই ছবিগুলি দেখে শেয়ার করা তো দূরের কথা, আমরা নিজেরা আগে হাসতে থাকি। আমাদের পুরনো ছবিগুলি দেখে আমরা নিজেরাই অনেক সময় লজ্জিত হয়ে ভাবি যে, আমি সত্যিই এরকম ছিলাম।

যদিও এরকম ঘটনা শুধুমাত্র আমাদের সাথেই নয়, বিভিন্ন সেলেবদের সাথেও হয়ে থাকে। আজ ঐশ্বর্য্য রাইকে দেখে মনে হয় বয়স বাড়ার সাথে তিনি আরও সুন্দরী হয়ে যাচ্ছেন এবং চেহারার উজ্জ্বলতা যেন আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। এমনিতে ঐশ্বর্য্যের সৌন্দর্য্যের প্রশংসা তো সচরাচর সকলেই করে থাকি, কিন্তু তিনি যখন মিস ওয়ার্ল্ড হয়েছিলেন তখন তার কিউটনেসের জবাব কারোর কাছেই ছিলো না। কিন্তু অ্যাশের মডেলিংয়ের দিনের ছবিগুলি দেখলে আপনি আশ্চর্যান্বিত হবেন। অ্যাশের মতো বলিউডের আরোও অন্যান্য সফল অভিনেত্রীদের মডেলিংয়ের সময়ের ছবিগুলি আপনাকে চমকে দেবে।

আসুন দেখে নেওয়া যাক ছবিগুলি, যেগুলি অভিনেত্রীরা নিজেরাও দেখতে চাইবেন না –

১. অনুষ্কা শর্মা

অযোধ্যায় জন্ম হওয়া অনুষ্কা বড় হন বেঙ্গালুরুতে এবং তিনি বড় হয়ে মডেল বা জার্নালিস্ট হতে চেয়েছিলেন। অনুষ্কা প্রথম কাজ পান ২০০৭ সালে। সিনেমা জগতে আসার পর অনুষ্কা সার্জারি করে তার লুক পরিবর্তন করেন।

২. ঐশ্বর্য্য রাই

ঐশ্বর্য্য ১৯৯৪ সালে মিস ওয়ার্ল্ডের খেতাব জেতেন। কলেজে পড়ার সময় তিনি মডেলিংয়ের কাজ করতেন, এছাড়াও বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। মিস ওয়ার্ল্ড হওয়ার পরই তিনি সিনেমা নির্মাতাদের নজরে আসেন এবং সিনেমায় কাজ করা শুরু করেন।

৩. সুস্মিতা সেন

সুস্মিতা সেন হলেন প্রথম ভারতীয় মহিলা যিনি মিস ইউনিভার্স খেতাব জেতেন। ১৯৯৪ সালে ১৮ বছর বয়সে তিনি এই খেতাব জেতেন। খেতাব জেতার দু বছর পর সুস্মিতাকে প্রথম দেখা যায় ‘দস্তক’ সিনেমায়।

৪. দীপিকা পাড়ুকোন

বলিউডের সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন দীপিকা, বাবার মতোই ব্যাডমিন্টন প্লেয়ার হতে চাইতেন। তিনি জাতীয় স্তরের ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতাতেও অংশগ্রহণ করেছিলেন। স্কুলে পড়ার সময় তিনি কিছু বিজ্ঞাপনেও কাজ করেছিলেন। ক্লাস টেনে ওঠার পর দীপিকা ব্যাডমিন্টন খেলা ছেড়ে দিয়ে মডেলিংয়ের কাজ শুরু করেন। ২০০৪ সালে তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত মডেল হয়ে উঠেন। ২০০৬ সালে এক কন্নড় সিনেমায় প্রথম তার অভিনয় জীবনের শুরু হয়।

৫. বিপাশা বসু

বিপাশা তার কেরিয়ারের শুরুটা করেছিলেন মডেলিং দিয়েই। কয়েকটি সুপারমডেল কম্পিটিশনেও তিনি অংশ নেন। তৎকালীন মডেল মেহের জেসিকা, বিপাশাকে মডেলিং করার পরামর্শ দেন। মডেলিংয়ের দিনের তার ছবিগুলি যথেষ্ঠ বিতর্কের সৃষ্টি করে।

৬. প্রিয়ঙ্কা চোপড়া

১৩ বছর বয়সে প্রিয়ঙ্কা আমেরিকা চলে যান পড়াশোনা করার জন্য। এরপর তিন বছর বাদে তিনি দেশে ফিরে আসেন। এখানে তিনি স্থানীয় বিউটি পিজ্যান্টের খেতাব জেতেন এবং ২০০০ সালে তিনি মিস ওয়ার্ল্ডের খেতাব পান। এই খেতাব জেতার পরই তিনি একের পর এক সিনেমার অফার পেতে থাকেন।

৭. ক্যাটরিনা কাইফ

ক্যাটরিনা লণ্ডনে থাকাকালীন অল্প বয়স থেকেই মডেলিংয়ের কাজ শুরু করেন। এরপর তিনি ফ্যাশন মডেল হয়ে যান এবং বিভিন্ন ফ্যাশন শো’তে অংশগ্রহণ করেন। সিনেমা নির্মাতা কৈজাদ গুস্তাদ তাকে লণ্ডনের এক ফ্যাশন শো তে দেখে বুম সিনেমায় অভিনয়ের সুযোগ করে দেন। ভারতে আসার পর এখানেও তিনি মডেলিংয়ের অফার পেতে থাকেন।

৮. লারা দত্ত

লারা দত্ত বলিউডের অত্যন্ত দক্ষ অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন। তিনি ২০০০ সালে মিস ইউনিভার্সের খেতাব জেতেন। বলিউড চলচ্চিত্রে অভিনয় করার আগে লারা দত্তও মডেলিংয়ের কাজ করতেন।

৯. জ্যাকলিন ফার্ণান্ডেজ

বলিউডের জনপ্রিয় সুন্দরী এই অভিনেত্রী আসলে শ্রীলঙ্কার মেয়ে। তিনি অভিনয়ে আসার আগে মডেলিংয়ের কাজ করতেন। ২০০৬ সালে তিনি মিস শ্রীলঙ্কা ইউনিভার্স বিউটি পেজান্ট জেতেন। আলাদিন সিনেমায় রীতেশ দেশমুখের বিপরীতে অভিনয় করে বলিউডে তার অভিষেক হয়।

১০. দিয়া মির্জা

দিয়া মির্জা একজন মডেল এবং টিভির বিজ্ঞাপনে অভিনেত্রীর কাজ করতেন প্রথমে। মডেলিং এবং পড়াশোনা একসাথে চালাতে না পারায় তিনি মাঝপথেই কলেজ ছেড়ে দেন। ২০০০ সালে তিনি মিস এশিয়া প্যাসিফিক খেতাব জেতেন। এরপরই তার সামনে বলিউডের দরজা খুলে যায়।