করো’না সন্দেহে মা-কে জঙ্গলে ফেলে গেল সন্তানেরা!

0
555
ছবি - ইন্টারনেট

করো’না ভাই’রাসে আ’ক্রান্ত সন্দেহে টাঙ্গাইলে এক নারীকে রাতের অন্ধকারে জঙ্গলে ফেলে গেছেন তার সন্তানেরা। সোমবার (১৩ এপ্রিল) রাতে বাংলাদেশের জেলা সখীপুরের গজারিয়া ইউনিয়নের ইছাদিঘী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে গভীর রাতে ওই নারীর কান্না শুনে স্থানীয় লোকেরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানান। রাত দেড়টার দিকে উপজেলা প্রশাসন ওই নারীকে উদ্ধার করে ঢাকায় পাঠায়। ওই নারীর বাড়ি শেরপুর জেলার নলিতাবাড়ি উপজেলায় বলে জানা গেছে।

গজারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবুল কালাম আজাদ বলেন, সোমবার রাত আটটার দিকে বনের ভেতর থেকে এক নারীর কান্নার শব্দ শুনে স্থানীয়রা আমাকে খবর দেয়।

স্থানীয় চেয়ারম্যানসহ এলাকার লোকজন ওই নারীর কাছে যান। ওই নারী তার ছেলেমেয়েরা কীভাবে তাকে জঙ্গলে ফেলে গেছেন, সেই কাহিনী বলেন। পরে রাত ১২টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) খবর দেয়া হয়। রাত দেড়টার দিকে ওই নারীকে উদ্ধা রের পর অ্যাম্বু লেন্সে করে ঢাকার কুয়েত-মৈত্রী হাসপাতালে পাঠানো হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ওই নারীকে ভর্তি না করলে মঙ্গলবার সকাল সাতটায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে রাখা হয়।

ছবি – ইন্টারনেট

সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা শাহীনুর আলম বলেন, ওই নারীর জ্বর, গলাব্যথা, সর্দি ও কাশি আছে। করো’না ভাই’রাসে আক্রান্ত হওয়ার উপসর্গ থাকায় ওই নারীকে রাতেই কুয়েত-মৈত্রী হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে ভর্তির সুযোগ না পাওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেলের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। আজ ওই নারীর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হবে।

ছবি – ইন্টারনেট

ইউএনও আসমাউল হুসনা লিজা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, করো’না ভাই’রাসে আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ থাকায় ওই নারীর এক ছেলে, দুই মেয়ে ও জামাতারা মিলে তাকে বনে রেখে গ্রামে চলে যান। কীভাবে সন্তানেরা মায়ের সঙ্গে এমন অমানবিক আচরণ করলেন? গ্রামবাসী খোঁজ না পেলে রাতের বেলা হয়তো ওই অসুস্থ নারীকে শিয়াল–কুকুরে খেয়ে ফেলত।

সূত্র