বছরের প্রথমদিনে শিশু জন্মে সারা বিশ্বকে পিছনে ফেলে ভারত ১ নম্বরে, সংখ‍্যা জানলে চমকে যাবেন

0
438

বছরের প্রথম দিন সারা পৃথিবীতে জন্ম নিল প্রায় ৪ লক্ষ শিশু। তালিকায় এক নম্বরে ভারত। ১ জানুয়ারি ভারতে ভূমিষ্ঠ হয়েছে ৬৭,৩৮৫ জন শিশু। ইউনিসেফ (UNICEF) এই তথ্য জানিয়েছে। তাদের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, বছরের প্রথম দিনে জন্ম নেওয়া শিশুর সংখ্যা ৩৯২,০৭৮ জন। ভারতের পরেই স্থান চিনের। বিশ্বের প্রায় ১৭ শতাংশ শিশু শুধুমাত্র ভারতেই জন্মগ্রহণ করবে বছরের প্রথমদিনটিতে। ইউনিসেফের তালিকা অনুয়ায়ী হিসেবটি দেখে নিন একবার এখানে, ভারত (৬৭,৩৮৫), চিন (৪৬,২৯৯), নাইজেরিয়া (২৬,০৩৯), পাকিস্তান (১৬,৭৮৭)‌, ইন্দোনেশিয়া (১৩,০২০), আমেরিকা (১০,৪৫২), কঙ্গো প্রজাতন্ত্র (১০,২৪৭) ও ইথিওপিয়া (৮,৪৯৩)।

ইউনিসেফের এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর হেনরিয়েটা ফোর জানাচ্ছেন, ‘‘নতুন বছর ও নতুন দশকের  শুরুতে আমাদের আশা ও আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটানোর সুযোগ। কেবল আমাদের ভবিষ্যতের জন্যই নয়, তাদের ভবিষ্যতের জন্যও, যাদের আমরা নিয়ে এলাম। প্রতি বছর ক্যালেন্ডার জানুয়ারিতে পৌঁছলে আমরা সকলকে মনে করিয়ে দিই সমস্ত শিশুর মধ্যেই সম্ভাবনা রয়েছে, যদি তাদের সুযোগ দেওয়া হয়।”

অনেকেরই ধারণা, বছরের পয়লা নম্বরে শিশর জন্ম হলে তার ভাগ্য সহায় হয়। ১লা জানুয়ারিতে জন্ম এমন সেলেব্রিটি ও বিখ্যাত মানুষের সংখ্যা কম নয়। বিদ্যা বালান, সত্যেন্দ্র নাথ বোসের জন্ম এদিন। ২০২০ সালের প্রথম শিশুটি সম্ভবত ভূমিষ্ঠ হয় ফিজিতে। আর নতুন বছরের প্রথম দিনের শেষ শিশুটি জন্মেছে আমেরিকায়। মোট সংখ্যার অর্ধেক সংখ্যক শিশুর জন্ম হয়েছে আটটি দেশে।

প্রতি বছরই ইউনিসেফ এই তালিকা প্রকাশ করে বছরের প্রথম দিনে। এই দিনে শিশুজন্মকে পবিত্র বলে ধরা হয়। যদিও সব ক্ষেত্রে বিষয়টি নবজাতকদের জন্য একেবারেই সুখপ্রদ হয় না। ২০১৮ সালে ২৫ লক্ষ নবজাতক জন্মের এক মাসের মধ্যেই মারা যায়। নির্ধারিত সময়ের আগে জন্মানো, ডেলিভারির সময় জটিলতা এবং সেপসিসের মতো সংক্রমণজনিত কারণে মূলত তাদের মৃ’ত্যু হয়।

রাষ্ট্রসঙ্ঘের হিসেব বলছে ২০১৯ থেকে ২০৫০ সালের মধ্যে ভারতে প্রায় ২৭৩ মিলিয়ন শিশু জন্ম নেবে। নাইজেরিয়ায় সম্ভাব্য সংখ্যা ২০০ মিলিয়ন। সেই হিসেবে ২০৫০ সালের মধ্যে জনসংখ্যা বৃদ্ধির ২৩ শতাংশই হবে ভারত ও নাইজেরিয়া থেকে। এই শতাব্দীর শেষে ভারত চিনকে টপকে বিশ্বের সবথেকে বেশি জনসংখ্যার দেশে পরিণত হবে।

সূত্র