অদ্ভুত কিছু ব্যাপার রয়েছে এদের মধ্যে, ছবিগুলি না দেখলে বিশ্বাস হবে না

0
1288

কথায় বলে ‘মানুষ অভ্যাসের দাস’, কিন্তু এই দুনিয়ায় এমন কিছু জিনিস রয়েছে যেগুলি আপনি হাজার চেষ্টা করেও শিখতে বা করতে পারবেন না। অজস্র মানুষ রয়েছে সারা পৃথিবী জুড়ে এবং সকলেরই আলাদা আলাদা স্পেশাল কিছু গুণাবলী রয়েছে। কিন্তু এক একজনের ক্ষেত্রে এই স্পেশাল জিনিসগুলি একটু বেশিরকম স্পেশাল।কখনও কখনও, কিছু ছবি দেখে, মানুষ এই ছবিতে কি করছেন তা দেখে বোঝা যায় না এবং কীভাবে তারা এই অন্যরকম জিনিসটি করতে পারে সেটা ভেবেও আমরা হয়রান হয়ে যায়। আজকে আমরা আপনাদের এমন কিছু ছবি দেখাবো যেগুলি দেখে আপনিও ভাববেন একজন মানুষ কিভাবে এটা করতে পারে ?

আসুন দেখে নেওয়া যাক ইন্টারনেটে ভাইরাল হওয়া এরকমই কয়েকটি ছবি যেগুলি আপনাকে বিস্মিত করবেই।

এই ছবিটি দেখে যে কেউ চমকে যাবেন, একটি মেয়ে কিভাবে তার জিভটি ভাঁজ করেছে দেখুন। চেষ্টা করে দেখতে পারেন যদি আপনিও করতে পারেন।

হাতের আঙুলের এতগুলো ভাঁজ, ভাবা যায়! দেখেছেন নাকি কাউকে এরকম করতে!

অনেকেই চেষ্টা করেছেন নানা সময়ে জিভ দিয়ে নাকের ডগ ছোঁয়ার, কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত খুব কম সংখ্যক মানুষেরই জিভ নিজের নাকের ডগা স্পর্শ করে

ভাই তো পুরো শরীরটাই বাঁকিয়ে ফেলেছে! অযথা চেষ্টা করতে যাবেন না, অকালে কোমরের অক্কা পেতে পারে

কড়ে আঙুলটা এইভাবে ভাঁজ করা! ধুর এ তো সোজা ব্যাপার, সবাই পারবে। একবার ট্রাই করে দেখুন না কেমন লাগে…

চুল দিয়ে, হাত দিয়ে গাড়ি টানতে অনেকেই দেখেছি। এই ব্যক্তির আবার সমস্ত জোর কানে। স্কুলে স্যারদের কাছে থেকে কানমোলা খেয়ে খেয়ে হয়তো কানটাই সিজন হয়ে গেছে!

 

একটু বেশিই লজ্জা পান বোধহয় এই কাকু! নিজের সমস্ত মুখটাই লুকিয়ে ফেলেছেন কোনো কিছুর সাহায্য ছাড়া।

 

শরীরের এরকম নমনীয়তা খুব কম লোকেরই দেখা যায়। এ নির্ঘাৎ বাবা রামদেবের ছাত্রী!

ঠোঁট বড় করার জন্য অনেকে তো প্লাস্টিক সার্জারি অবধি করেন। এই ভাইয়ের ঠোঁট তো এমনিতেই এক কিলোমিটার চওড়া!

এই ভাইকেও দেখে মনে হচ্ছে বাবা রামদেবের যোগা অনুশীলন কেন্দ্রের সদস্য

ছবিটা আরেকবার ভালো করে দেখুন। সত্যিই অবাক করার মতো।

হেলান দেয়ার জন্য চেয়ার নেই তো কি হয়েছে। ভগবান পা দিয়েছে কি করতে! দিব্যি হেলান দিয়ে বসে কাজ করছে মামণি

এনার আবার রয়েছে অতিরিক্ত শারীরিক অঙ্গ, নাম জেসমিন ট্রিডেভিল