এই ১০টি জিনিস ভারতে বেআইনি, জানলে অবাক হবেন

0
1210

আমরা আমাদের নিজস্ব দেশের সরকারী আইন সম্পর্কে খুব কমই জানি। এমন অনেক জিনিস আছে যা ভারতে নিষিদ্ধ বা বেআইনি বিবেচনা করা হয় যা আমরা জানি না। আইন দ্বারা নিষিদ্ধ এই অবৈধ জিনিসগুলি সম্পর্কে আমাদের সচেতন হতে হবে। একজন ভারতীয় নাগরিক হিসেবে আমাদের অবশ্যই জানা উচিৎ কোনটা সঠিক এবং কোন জিনিস আমাদের সমস্যার মধ্যে ফেলতে পারে। আজকালকার যুবসমাজ আইন মিয়ে যথেষ্ট সচেতন।

আসুন দেখে নেওয়া যাক আমাদের দেশের এমন ১০টি কাজকর্ম যেগুলি আপাত দৃষ্টিতে সাধারণ মনে হলেও সেগুলি বেআইনি-

১. পঙ্গপালের আক্রমণের সময় ঢাক-ঢোল পিটিয়ে কর্তৃপক্ষকে সতর্ক না করা দিল্লিতে অবৈধ

১৯৪৯ সালে পাঞ্জাব কৃষি কীটপতঙ্গ নিয়ন্ত্রক সংস্থা একটি আইনের খসড়া তৈরি করে যেখানে বলা হয়, শহরে পঙ্গপালের বা অন্যান্য কীট-পতঙ্গের আক্রমণ হলে তা শহরবাসীকে একটি ঢোল বাজিয়ে নির্দিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে অন্যথায় তাদের ৫০টাকা জরিমানা দিতে হবে।

২. যদি আপনি টাকা পয়সা পড়ে থাকতে দেখেন এবং যদি এটি ১০ টাকা থেকে বেশি হয় আর আপনি এটির রিপোর্ট না করেন তবে আপনি একটি অপরাধমূলক কাজ করছেন

১৮৭৮ সালের “ট্রেজার ট্রোভ অ্যাক্ট” অনুযায়ী আপনি যদি কোনো ধন-সম্পদ কুড়িয়ে পান, সেটি শুধু এবং শুধুমাত্রই রাণীর। যদি আপনি টাকা-পয়সা পান, তাহলে এটি যদি ১০ টাকা থেকে কম হয় তবে আপনি আনন্দের সাথে এটা রাখতে পারেন। কিন্তু যদি আপনি ১০ টাকা বা তার চেয়ে বেশি পান তবে আপনাকে কর্তৃপক্ষের কাছে রিপোর্ট করতে হবে অন্যথায় আপনি একজন অপরাধী।

৩. অনুমতি ছাড়া ঘুড়ি ওড়ানো

১৯৩৪ সালের ভারতীয় বিমান আইন অনুযায়ী, অনুমতি ছাড়া ঘুড়ি ওড়ানো সম্পূর্ণ বেআইনি। আপনি যদি এটা করেন তাহলে আপনি ভুল!

৪. একই ডান্স ফ্লোরে ১০ জনের বেশি জুটির নাচ করা অবৈধ

১৯৬০ সালের Licensing and controlling places of Amusement আইন অনুযায়ী একই মেঝেতে ১০জনের বেশি জুটি নৃত্য প্রদর্শন করতে পারেন না। সেক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষ মনে করলে অনুষ্ঠান বাতিল করতে পারে।

৫. রাস্তার ধারের দোকানে আপনার দাঁত, কান পরিস্কার করা বেআইনি

১৯৪৮-এর Chapter V, Section 49 of the Dentist Act অনুযায়ী রাস্তার পাশে দোকানগুলিতে দাঁত, কান প্রভৃতি পরিস্কার করা বেআইনি। কিন্তু দারিদ্রদতার কারণে এই দোকানগুলি বন্ধ করা মুশকিল।

৬. আত্মহত্যার চেষ্টা করা বেআইনি

Section 309 of IPC অনুযায়ী আত্মহত্যা চেষ্টা করা গুরুতর অপরাধ। জরিমানা আরোপ করার নিয়ম রয়েছে, আত্মহত্যায় সফল হওয়ার পরেও। এটি একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

৭. সেইসব কারখানাগুলি বেআইনি যেখানে শ্রমিকদের কাজের জায়গায় থুতু ফেলার নির্দিষ্ট থুকদানি দেওয়া হয়না

১৯৪৮ এর Factories Act অনুযায়ী শ্রমিকদের কাজের জায়গায় মেঝেতে নির্দিষ্ট সংখ্যক থুকদানি থাকতে হবে।

৮. দালালিবৃত্তি অবৈধ কিন্তু পতিতাবৃত্তি বৈধ

আমরা এমন একটি দেশে বাস করি যেখানে মানুষ বড় বিষয়ে চিন্তা করে না, কিন্তু ছোটো বিষয়গুলি নিয়ে গল্প তৈরি করার চেষ্টা করে। ভারতে এমন অনেক নিষিদ্ধ অঞ্চল রয়েছে যা কখনোই অবৈধ বলা হয় না, তবে আপনি যদি দালালি করার চেষ্টা করেন তবে আপনি একজন অপরাধী।

৯. কারখানাতে মহিলাদের রাতে কাজ করানো বেআইনি

১৯৪৮ এর Factories Act অনুযায়ী মহিলাদের রাতের বেলা কারখানাতে কাজ করানো বেআইনি। কিন্তু সরকার বেশিরভাগ সময়ই মহিলাদের আসল সমস্যাগুলির দিকেই নজর দেয় না।

১০. ওরাল সেক্স একটি অপরাধ

Section 377 of the IPC অনুযায়ী বিকৃত কাম একটি অপরাধ এবং ওরাল সেক্স তার মধ্যেই পড়ে।

তাই সবশেষে বলি, উপরের কাজগুলি করার আগে একটু ভেবে-চিন্তে করবেন। ভালো লাগলে লাইক-কমেন্ট-শেয়ার করতে ভুলবেন না।